‘আমি বামপন্থীদের বলছি, একটু কোমর বেঁধে লাগুন’, বারাসতের জনসভা থেকে বললেন সৌগত রায়

‘আমি বামপন্থীদের বলছি, একটু কোমর বেঁধে লাগুন’, বারাসতের জনসভা থেকে বললেন সৌগত রায়

সৌগত রায় এ দিন দাবি করেন, বাইরে থেকে এসে এই রাজ্যে কেউ ছড়ি ঘোরাবে তা আমরা আটকাবই। এই নির্বাচন বাঙালির অস্মিতার লড়াই বলে উল্লেখ করে ফের বহিরাগত তত্বকে সামনে আনেন তিনি।

সৌগত রায় এ দিন দাবি করেন, বাইরে থেকে এসে এই রাজ্যে কেউ ছড়ি ঘোরাবে তা আমরা আটকাবই। এই নির্বাচন বাঙালির অস্মিতার লড়াই বলে উল্লেখ করে ফের বহিরাগত তত্বকে সামনে আনেন তিনি।

  • Share this:

 RAJARSHI ROY

#বারাসত: রাজ্যে আট দফার ভোট নিয়ে তীব্র ক্ষোভ তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়ের। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত, মেনে নিতেই হবে, অসুবিধে হলেও তৃণমূল জিতবে, মত তাঁর। অন্য রাজ্যের কম দফায় ভোট ও এই রাজ্যে আট দফায় ভোটের সিদ্ধান্তকে তৃণমূল সমর্থন করছে না, জানান তিনি । এক  জেলায় নির্বাচনের একাধিক দিন অনভিপ্রেত জানিয়ে সৌগত রায়ের অভিমত। কেন্দ্রীয় সরকারের দ্বারা প্রভাবিত হয়েই এই সিদ্ধান্ত , মত তাঁর। বাংলায় আট দফায় ভোটের সিদ্ধান্ত এইদিন বারাসতের বিধায়ক চিরঞ্জিতও স্বকীয় ভঙ্গিতে সমালোচনা করছেন রাজ্যে আট দফায় নির্বাচন ঘোষণাকে। রাজ্যে অশান্তি প্রমাণ করার কেন্দ্রীয় ব্লুপ্রিন্ট, মনে করেন চিরঞ্জিত । চিরঞ্জিতের অভিযোগ, আট দফায় ভোট না করালে রাজ্যে অশান্তি আছে প্রমাণিত হবে কী করে?

বারাসতে এসে একই সঙ্গে চিরঞ্জিত জানালেন, টিকিট পেলেই তিনি নির্বাচনী প্রচারে আসবেন । চিরঞ্জিত কেন্দ্রীয় সরকারকে উদ্দেশ্য করে এ দিন বলেন, খেলা হবেই এবং ওঁদের ব্যাট বল দেওয়া হোক, প্র্যাকটিস করুক । এ দিন সৌগত রায়, তাঁর বক্তব্যে দাবি করেন, এই বারাসত শহর ফরওয়ার্ড ব্লকের চিত্ত বসু ও সরল দেবেদের জায়গা ছিল। এই সভা মঞ্চের সামনেই চিত্ত বসু থাকতেন ফরওয়ার্ড ব্লকের পার্টি অফিসে।মন্তব্য সৌগত রায়ের।বামপন্থীরা একটু নড়াচড়া করুন মন্তব্য সাংসদ সৌগত রায়ের। এ দিন মোদির নাম না নিয়ে ‘একমুখ দাঁড়িওয়ালা’ বলে উল্লেখ করেন সৌগত রায়। বলেন, ‘উনি রবীন্দ্রনাথ নন, ঠগেন্দ্রনাথ। সারা ভারতকে ঠাকাচ্ছেন। কালা কৃষি কানুন এনে কৃষককেও ঠকাতে চাইছেন’। ব্যাঙ্গের ঢং এ ‘নাড্ডা না গাড্ডা’ বলে উল্লেখ করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতিকে। আর তাঁর গতকাল ব্যারাকপুরে বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে যাওয়াকে সমালোচনা করেন। বলেন, ‘উনি সাহিত্যিকের বাড়ি গিয়ে তাঁকে বড় উপন্যাসিকের বদলে ঔপ্যনাসিক বলে অপমান করছেন।

সৌগত রায় এ দিন দাবি করেন, বাইরে থেকে এসে এই রাজ্যে কেউ ছড়ি ঘোরাবে তা আমরা আটকাবই। এই নির্বাচন বাঙালির অস্মিতার লড়াই বলে উল্লেখ করে ফের বহিরাগত তত্বকে সামনে আনেন তিনি। বামপন্থীদের প্রতি তৃৃৃৃণমুলের আবেদনকে কটাক্ষ করেন বিজেপির বারাসত সংসদীয়  জেলার সভাপতি শঙ্কর চ্যাট্টোপাধ্যায়। তাঁর বক্তব্য, সিপিএম তথা বামেদের সরাতেই তৃনমুলের জন্ম এই রাজ্যে। আর আজ সেই সিপিএমের ভোট কী করে বাড়ে তার জন্য তৃণমুল নেতাদের ঘুম হচ্ছে না। এটাই বলে দিচ্ছে বাংলায় এ বার বিজেপি ক্ষমতায় আসছে, মন্তব্য বিজেপি নেতা শঙ্কর চট্টোপাধ্যায়ের।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর