মেমারি ও কালনা থেকে বাজেয়াপ্ত প্রচুর পরিমাণ বাজি, গ্রেফতার ২

মেমারি ও কালনা থেকে বাজেয়াপ্ত প্রচুর পরিমাণ বাজি, গ্রেফতার ২
আদালতের নির্দেশের পরই বাজি বিক্রি বন্ধ করতে তৎপরতা বাড়িয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ

আদালতের নির্দেশের পরই বাজি বিক্রি বন্ধ করতে তৎপরতা বাড়িয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ

  • Share this:

#বর্ধমান: কালী পুজো বা ছট পুজোয় বাজি পোড়ানো সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। করোনা পরিস্থিতির কারণেই এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আদালত। আদালতের সেই নির্দেশের পরই বাজি বিক্রি বন্ধ করতে তৎপরতা বাড়িয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। জেলা জুড়ে বাজি বিক্রি রুখতে অভিযানে নেমেছে জেলা পুলিশ প্রশাসন। ইতিমধ্যেই প্রচুর পরিমাণ বাজি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে একাধিক জনকে বেআইনিভাবে বাজি মজুত করার অভিযোগে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মেমারি থানার ৪ নম্বর বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় একটি স্টেশনারি দোকানে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে প্রচুর পরিমাণ নিষিদ্ধ শব্দবাজি উদ্ধার হয়েছে। চকলেট বোম-সহ বিভিন্ন প্রকার বাজি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, ওই দোকানে বেআইনিভাবে প্রচুর বাজি মজুত করা হয়েছিল। প্রায় ৭ কুইন্টাল বাজি সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে প্রচুর পরিমাণ বাজি মজুদের অভিযোগে দোকানের মালিককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দোকানের মালিক জয়ন্ত পাল কালী পুজোয় বিক্রির জন্য শব্দবাজি-সহ নানা বাজি মজুত করেছিলেন।গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মেমারি থানার পুলিশ তার দোকানে হানা দেয়। পুলিশের দাবি, অভিযুক্ত ব্যক্তি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।বাজি বিক্রেতা জয়ন্ত পাল অবশ্য জানান, আদালতের নির্দেশের আগেই তিনি ওই বাজি বিক্রির জন্য মজুত করেছিলেন।


বেআইনিভাবে বাজি মজুতের অভিযোগে কালনা থানার নিউ মধুবন এলাকা থেকেও এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়।স্থানীয় ওই যুবকের নাম ইন্দ্রজিৎ রায়। তার কাছ থেকেও প্রচুর পরিমাণ চকলেট বোম পাওয়া গিয়েছে বলে পুলিশের দাবি।

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বায়ু দূষণ রুখতে বাজি ব্যবহারের বিরুদ্ধে দীপাবলি পর্যন্ত লাগাতার অভিযান চালানো হবে। জেলা পুলিশের এক পদস্থ আধিকারিক জানান, করোনা পরিস্থিতিতে বায়ু দূষণ কখনওই কাম্য নয়। তাই বাসিন্দাদের সচেতন করতে লাগাতার প্রচার চালানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

SARADINDU GHOSH

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

লেটেস্ট খবর