• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • HOWRAH NEWS HOWRAH CITY POLICE RETUNED STOLEN MOBILE AND GOLD TO THE PROPERTY OWNERS SWD

Howrah news: অভিনব কায়দায় চুরি যাওয়া সোনা, মোবাইল ফিরে পেলেন সম্পত্তির মালিকরা! হাওড়া সিটি পুলিশের নতুন উদ্যোগ

Howrah news: মঞ্চ বেঁধে, ব্যানার লাগিয়ে চুরি যাওয়া সম্পত্তি মালিকদের হাতে তুলে দিল হাওড়া সিটি পুলিশ।

Howrah news: মঞ্চ বেঁধে, ব্যানার লাগিয়ে চুরি যাওয়া সম্পত্তি মালিকদের হাতে তুলে দিল হাওড়া সিটি পুলিশ।

  • Share this:

#হাওড়া: মঞ্চ বেঁধে, ব্যানার লাগিয়ে চুরি যাওয়া সম্পত্তি মালিকদের হাতে তুলে দিল হাওড়া সিটি পুলিশ। এই অভিনব অনুষ্ঠান হয়ে হাওড়ার বালি এলাকায়। সকাল থেকেই সাজো সাজো রব। মহিলা কর্মীরাও পুলিশ পোশাক ছেড়ে রঙিন শাড়ি পরে উপস্থিত। শুধু কি তাই? ফুল দিয়ে উপহারের ডালি সাজিয়ে উদ্ধার হওয়া চুরি যাওয়া গয়না, হারিয়ে যাওয়া মোবাইল একে তুলে দেওয়া হলো তাঁদের মালিকদের হাতে। বিভিন্ন সময়ে হারিয়ে যাওয়া প্রায় ২৫টি স্মার্টফোন ফিরিয়ে দিল পুলিশ। শুধু তাই না। বালি থানা এলাকায় ইদানিং সময়ে চার চারটি চুরির ঘটনার প্রায় ১২০ কেজি সোনা রুপার গয়না ফেরত দেওয়া হলো।

সাধারণ ভাবেই তো এই জিনিসগুলি ফেরত দেওয়া যেত? তাহলে কেন এতো এলাহি অনুষ্ঠান? তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। অনেকের দাবি চুরি আটকাতে পারছে না পুলিশ। কিন্তু যখন চুরি যাওয়া জিনিস উদ্ধার করতে পারছে ঠিক তখনই এলাহি অনুষ্ঠান করে নিজেদের ঢাক পেটাচ্ছে। এই বিষয়ে অনুষ্ঠানে হাজির হাওড়া সিটি পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (উত্তর ) অনুপম সিং বলেন, "আসলে এই এলাহি অনুষ্ঠান করার অনেক গুলি কারণ আছে। প্রথমত আমরা সাধারণ মানুষকে একটা আশ্বাস দিতে পারি যে, কোনও ঘটনা ঘটলে পুলিশ তাদের পাশে আছে। এমনকি চুরি গেলেই হতাশার কিছু নেই। সেই চুরি যাওয়া সামগ্রী ফিরে পাওয়া যায়।"

তিনি আরও বলছেন, "দ্বিতীয়ত, চোরেদেরও একটা জবাব দেওয়া যে পুলিশ কতটা সক্রিয়। ফলে তাদের মধ্যেও একটা ভীতি তৈরী হবে। আর যদি এই উদ্ধার হওয়া সামগ্রী থানায় ডেকে একে একে দিয়ে দিতাম সেক্ষেত্রে সমাজে এর সুফলের প্রভাবটা কম হতো।" অন্যদিকে আরও একটি প্রশ্ন থেকে যায় মোবাইল উদ্ধারের ক্ষেত্রে। বারবার দেখা যায় মোবাইল উদ্ধার হলেও সেই চুরি করা ব্যক্তিকে গ্রেফতার হতে দেখা যায় না।

আরও পড়ুন- স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডে লোন চেয়ে বিপাকে পড়ুয়া! বাড়ির দলিল বন্ধক চাইল ব্যাঙ্ক

সেই প্রশ্নের উত্তরে অনুপম বাবুর জানান , "মোবাইল যারা চুরি করে তারা কেউ সেই মোবাইল ব্যবহার করে না। কম টাকায় সেই মোবাইল বিক্রি করে দেয়। ফলে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় মোবাইল যিনি ব্যবহার করছেন তিনি এই চুরির সঙ্গে যুক্ত নন বা সমাজের শিক্ষিত কোনও ব্যক্তি। তাঁর একটা সম্মান রয়েছে। ফলে চুরির মোবাইল ব্যবহারকারী ব্যক্তির সম্মান রক্ষার জন্যই তাঁদেরকে গ্রেফতার করা হয় না।"

আরও পড়ুন- বন্দুক-লাঠি ছেড়ে পুলিশের হাতে কোদাল-বেলচা! ব্যাপার কী? মুগ্ধ চোখে দেখল সিউড়ি

তিনি আরও বলছেন, "এই বিষয়ে সাধারণ মানুষকে আরও সজাগ হতে হবে। দোকান ব্যতীত কোনও ব্যক্তির কাছ থেকে মোবাইল কেনার সময় নির্দিষ্ট মোবাইলের আসল বিল দেখেই তারপর কিনতে হবে।" ডি সি নর্থের দাবি, এই ধরণের অনুষ্ঠান যার নাম দেওয়া হয়েছে "প্রত্যর্পণ" প্রায় প্রতিমাসে হাওড়ার বিভিন্ন থানায় এই অনুষ্ঠান হচ্ছে এবং আগামী দিনেও হবে |

দেবাশিস চক্রবর্তী

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: