স্ত্রীর দেহ টুকরো করতে কসাইকে ৩০ হাজার টাকা! জেরায় স্বীকার স্বামীর

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 21, 2019 07:18 PM IST
স্ত্রীর দেহ টুকরো করতে কসাইকে ৩০ হাজার টাকা! জেরায় স্বীকার স্বামীর
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 21, 2019 07:18 PM IST

#বালি: স্ত্রীর মিসিং ডায়েরি করে পুলিশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা কাজে এল না। সিসিটিভি ফুটেজেই ধরা পড়ে গেলেন শিবপুরের উপেন্দ্র রজক। স্ত্রীকে খুন করে , কসাই ডেকে দেহ টুকরো টুকরো করে কেটে ব্যাগে ভরে গঙ্গায় ভাসিয়ে দেওয়ার ঘটনায় রীতিমত আতঙ্কে সোনি-উপেন্দ্রর প্রতিবেশীরা।

স্ত্রীকে খুন করার পর দেহ গঙ্গায় ভাসিয়ে দিয়ে নিজেই থানায় মিসিং ডায়েরি করলেন স্বামী। পুলিশকে বিভ্রান্ত করতে আঠার-ই জুলাই বিকেলে শিবপুর থানায় চলে যান শিবপুরে গিরিশ চ্যাটার্জ লেনের বাসিন্দা উপেন্দ্র রজক। থানায় মিসিং ডায়েরিও করেন। এদিকে, সেদিন সকালেই বালির জেটিয়াঘাটে একটি ব্যাগ থেকে উদ্ধার হয়েছে এক মহিলার কাটা মুন্ডু ও দেহাংশ। আরও একটি ব্যাগে মেলে কয়েকটি ধারাল অস্ত্র। তদন্তে নামে বালি থানার পুলিশ।

--কাটা মুন্ডুর ছবি তুলে বালি থানা বিভিন্ন থানায় পাঠিয়ে দেয়

--তখনই শিবপুর থানার মিসিং ডায়েরির খবর আসে

Loading...

শনাক্তকরণের জন্য ডাকা হয় সোনির স্বামী উপেন্দ্র রজককে। স্ত্রীকে তখন চিনতে অস্বীকার করেন উপেন্দ্র। তাঁর দাবি ছিল,

---একাধিক পুরুষের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল স্ত্রীর

---তাদেরই কারও সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছেন সোনি

এরপর জিটি রোডের বিভিন্ন জায়গার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে পুলিশ। বালিখালের কাছে সিসিটিভিতে দেখা যায়, তিনজন যুবক ট্যাক্সি থেকে তিনটি ব্যাগ নামাচ্ছে। পরে ব্যাগগুলি নিয়ে রিকসায় করে জেটিয়াঘাটের দিকে চলে যাচ্ছে।

ট্যাক্সি চালক ও রিকশা চালককে জেরা করে জানা যায়, হাওড়া ময়দান থেকে ট্যাক্সিতে ওঠে ওই তিন যুবক। ততক্ষণে সিসিটিভি ফুটেজে স্পষ্ট, এই তিনজনের মধ্যে একজন উপেন্দ্র রজক। এরপরই ফের উপেন্দ্রকে ডেকে পাঠিয়ে জেরা করা হয়। টানা জেরায় ভেঙে পড়ে স্ত্রীকে খুনের কথা স্বীকার করে নেন উপেন্দ্র। তিনি জানান,

-- স্থানীয় কসাই দিলওয়ার খান-ই ঘুমের ওষুধ কিনে আনে

--১৭-ই জুলাই রাতে স্ত্রীকে সেই ঘুমের ওষুধ খাইয়েই আচ্ছন্ন করা হয়

--তারপর শ্বাসরোধ করে খুন

--স্ত্রীর দেহ টুকরো ও লোপাটের জন্য দিলওয়ারকে তিরিশ হাজার টাকাও দেন উপেন্দ্র

ঘটনায় রীতিমত আতঙ্কে সোনি-উপেন্দ্রর প্রতিবেশীরা। খুনের মোটিভ নিয়ে এখনও ধন্দে পুলিশ। উপেন্দ্রর দাবি অনুযায়ী, বিবাহ বহির্ভুত সম্পর্কের জেরেই কী স্ত্রীকে খুন? না কী অন্য কোনও রহস্য? উত্তর খুঁজছে পুলিশ।

First published: 07:18:20 PM Jul 21, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर