#EgiyeBangla: কৃষি ও সেচের সুবিধায় হিজলি ক্যানাল সংস্কার, সরকারি উদ্যোগে খুশি জেলার মানুষ

#EgiyeBangla: কৃষি ও সেচের সুবিধায় হিজলি ক্যানাল সংস্কার, সরকারি উদ্যোগে খুশি জেলার মানুষ
  • Share this:

#হলদিয়া: দাবি জানিয়েছিলেন স্থানীয় কৃষকরা। তাঁদের দাবি মেনে কৃষির সার্বিক উন্নয়নে পূর্ব মেদিনীপুরের হিজলি ক্যানাল সংস্কার করেছে হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদ। কৃষিতে সেচের সুবিধা হচ্ছে। নিকাশি ব্যবস্থাও উন্নত হয়েছে। মজে যাওয়া হিজলি ক্যানালের হাল ফিরিেয় কৃষি ও সেচের উন্নয়ন করেছে রাজ্য সরকার।

পূর্ব মেদিনীপুরের হিজলি ক্যানাল স্বাধীনতার পর একবারও সংস্কার হয়নি। দু’হাজার এগারোয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হিেসবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এই ক্যানালটি সংস্কারে উদ্যোগী হন। দ্বিতীয়বারের জন্য এই ক্যানাল সংস্কার করেছে হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদ। একসময় ক্যানাল দিয়ে জলপথে সাধারণ মানুষ যাতায়াত করতেন। তবে বছরের পর বছর সংস্কার না হওয়ায় মজে গিয়ে শীর্ণ খালে পরিণত হয় ক্যানালটি। এর ফলে যাতায়ােতর যেমন অসুবিধা হয়। সঙ্গে কৃষকরাও সমস্যায় পড়েন। ক্যানাল েথকে সেচের ব্যবস্থা নষ্ট হয়ে কৃষকদের মাথায় হাত পড়ে। শেষ পর্যন্ত ক্যানাল সংস্কার হওয়ায় সেই সমস্যার সমাধান হয়েছে। সরকারি এই উদ্যোগে খুশি গেঁওখালি থেকে তেরপেখ্যা কিংবা মহিষাদল থেকে নন্দীগ্রাম সহ জেলার বড় অংশের মানুষ।

গেঁওখালি থেকে শুরু হওয়া হিজলি ক্যানাল ওড়িশা পর্যন্ত বিস্তৃত। নিকাশি থেকে সেচ, এলাকার উন্নয়নে এই ক্যানালের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। জেলার কৃষি বিশেষজ্ঞদের দাবি,

হিজলি ক্যানাল সংস্কার

-------------------

- ক্যানালের জল থেকে প্রায় ৫ হাজার হেক্টর চাষের জমিতে সেচের সুবিধা পাচ্ছেন কৃষকরা

- জেলার ২০-২৫ হাজার কৃষক উপকৃত হচ্ছেন

- দু’দফায় ক্যানাল সংস্কারে প্রায় ৮ কোটি টাকা খরচ হয়েছে

হিজলি ক্যানালের ঐতিহাসিক তাৎপর্যও গুরুত্বপূর্ণ।

গুরুত্ব বুঝেই কৃষি ও সেচের সুবিধায় হিজলি ক্যানাল দু’বার সংস্কার হয়েছে। আগামী দিনেও এই ক্যানাল সংস্কারের কাজ ধারাবাহিকভাবে চলবে বলে জানিয়েছেন হলদিয়া উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান ও মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

- হিজলি ক্যানাল সংস্কার

- কৃষি ও সেচের সুবিধা

- ইংরেজ আমলে খনন হয় ক্যানাল

- তারপর একবারও সংস্কার হয়নি

- তৃণমূল আমলে ২ বার সংস্কার

First published: 10:51:56 AM Feb 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर