ভাঙড়ের পোলেরহাট-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনেও প্রশ্নে পুলিশের ভূমিকা

ভাঙড়ের পোলেরহাট-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনেও প্রশ্নে পুলিশের ভূমিকা
Photo: News 18 Bangla
  • Share this:

#ভাঙড়: বনগাঁর পর এবার ভাঙড়ের পোলেরহাট-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনেও প্রশ্নে পুলিশের ভূমিকা। বারুইপুরের এসপির ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তের। ভাঙড়ের পোলেরহাট-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচন সংক্রান্ত মামলা। মঙ্গলবার, এই মামলার শুনানিতেই বারুইপুরের পুলিশ সুপারকে কার্যত ভর্ৎসনা করলেন বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত। বলেন, বুধবার, পোলেরহাট-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নির্বাচনের যে সভা হওয়ার কথা ছিল তার উপরও স্থগিতাদেশ দিয়েছে বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ।

ভাঙড়ে পাওয়ার গ্রিড বিরোধী আন্দোলনের কেন্দ্রস্থল এই পোলেরহাট ২ গ্রাম পঞ্চায়েত। গত বছর পঞ্চায়েত ভোটে বিনা লড়াইয়ে আটটি আসনে জেতে তৃণমূল। বাকি আটটির মধ্যে পাঁচটি আসনে জয়ী হন আন্দোলনকারীরা৷ তিনটিতে তৃণমূল।

২০১৮ সালে পঞ্চায়েত ভোটের ফল বেরোনর পরেও দীর্ঘদিন এই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ও উপপ্রধান নির্বাচনের সভা হয়নি। গত ১৪ জুন প্রশাসনের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয় ২৫ জুন প্রথম সভা হবে। কিন্তু, ২২ জুন ফের বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয় অনিবার্য কারণে সভা হবে না। এরপরই কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন জয়ী নির্দল প্রার্থী লতিব বৈদ্য। গত ৯ জুলাই, বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় নির্দেশ দেন আলিপুরে জেলাশাসকের দফতরে সভা করার, বুধবার সেই সভা হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু, তার আগেই বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হন আরও দুই জয়ী নির্দল প্রার্থী আজিজুল মোল্লা এবং ছালেয়ারা বিবি। অভিযোগ, তাঁদের মূল মামলার সঙ্গে যুক্ত করা হয়নি এবং আইন অনুযায়ী সভা হওয়ার কথা পঞ্চায়েত অফিসে। এই মামলার শুনানিতেই এ দিন বারুইপুরের পুলিশ সুপারের রিপোর্ট পেশ করে রাজ্য। তখনই বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত এসপির ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

First published: July 31, 2019, 10:58 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर