corona virus btn
corona virus btn
Loading

কালনা মহকুমা হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে ভেষজ উদ্যান, লাগানো হল তুলসী, কালমেঘ-সহ নানা ওষধি গাছ

কালনা মহকুমা হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে ভেষজ উদ্যান, লাগানো হল তুলসী, কালমেঘ-সহ নানা ওষধি গাছ

তুলসী, বাসক, কালমেঘ, ঘৃতকুমারী-সহ নানান ওষধি গাছ লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে এখানে।

  • Share this:

#বর্ধমান: কালনা মহকুমা হাসপাতালে তৈরি হচ্ছে ভেষজ উদ্যান। বর্ষা নামতেই সেই উদ্যানে চারা গাছ রোপনের কাজ শুরু হয়ে গেল। তুলসী, বাসক, কালমেঘ, ঘৃতকুমারী-সহ নানান ওষধি গাছ লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে এখানে। কালনা মহকুমা হাসপাতালে এক একরেরও বেশি জমিতে তৈরি হওয়া এই ভেষজ উদ্যানে গাছ লাগানোর কর্মসূচি নিয়েছিল বর্ধমান জেলা প্রকৃতি ও পশুপ্রেমী সংস্থা। সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাণী সম্পদ বিকাশ মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, শিক্ষারত্ন তাপস কার্ফা, কালনা মহকুমা হাসপাতালের সুপার কৃষ্ণচন্দ্র বড়াই সহ বিশিষ্টজনেরা। ছিল স্থানীয় স্কুলের ছাত্রছাত্রীরাও। শিশুমনে ভেষজ গাছ সম্পর্কে আগ্রহ বাড়াতেই তাঁদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

এই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নিজে হাতে তুলসী গাছের চারা রোপণ করেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। তিনি বলেন, তুলসী পাতা শুধুই দেবদবীদের পায়ে অর্পণ করলে চলবে না। তুলসী পাতার রস খেতে হবে। তুলসী পাতার রস রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তাছাড়া করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে প্রতিষেধক তৈরিতেও তুলসীর রস ব্যবহৃত হচ্ছে বলে মন্ত্রী দাবি করেন। তিনি বলেন, সবাই নিয়মিত তুলসী পাতার রস খান। অনেক রোগ বালাই তাতে দূরে থাকবে।

কালনা মহকুমা হাসপাতালের সুপার কৃষ্ণচন্দ্র বড়াই অবশ্য বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে তুলসীর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের প্রমাণ মেলেনি। করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে বিশ্বজুড়ে চেষ্টা চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে তুলসীর রস খুবই কার্যকরী। তাই ইমিউনিটি বাড়াতে তুলসীর রস নিয়মিত খাওয়া উচিত।

কালনা মহকুমা হাসপাতালে প্রতিদিন প্রচুর রোগী আসেন। রোগীর আত্মীয়রাও থাকেন হাসপাতাল চত্ত্বরে। তাঁদের মধ্যে উৎসাহ বাড়াতেই এই ভেষজ উদ্যানের পরিকল্পনা। হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন, কোনটা কি গাছ সে সম্পর্কে সকলকে পরিচিত করা বা তার গুণাগুণ সম্পর্কে সকলকে অবহিত করা গেলে ভেষজ গাছের প্রতি বাসিন্দাদের উৎসাহ বাড়বে। তারা সেসব গাছ লাগাতে আগ্রহী হবে। সেই উদ্দেশ্যেই এই ভেষজ উদ্যান তৈরির পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 22, 2020, 5:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर