অন্য রাজ্য থেকে আসা ব্যক্তিদের ওপরও এবার নজরদারি, পথসাথীতে হবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা

অন্য রাজ্য থেকে আসা ব্যক্তিদের ওপরও এবার নজরদারি, পথসাথীতে হবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা

বাইরের রাজ্য থেকে যাঁরা ফিরছেন তাদের তথ্য সংগ্রহ করার পাশাপাশি তাদের শারীরিক পরীক্ষাও করা হবে

  • Share this:

#বর্ধমান: জাতীয় সড়ক বা রাজ্য সড়কের ধারে তৈরি হওয়া পথসাথীগুলিতে করোনা ক্যাম্প চালুর সিদ্ধান্ত নিল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। শুক্রবার বর্ধমানে করোনা বিষয়ে পর্যালোচনা বৈঠক করে জেলা প্রশাসন। সেই বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্তের কথা জানান পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতী। এছাড়াও বাইরের রাজ্য থেকে এসে বাধার মুখে পড়া বাসিন্দাদের আইসোলেশন ওয়ার্ড ও কোয়ারান্টিনে রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জেলা শাসক বিজয় ভারতী জানান, শুধু বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের হোম কোয়ারান্টিনে রেখে তাদের ওপর নজরদারি রাখা নয়, করোনা আক্রান্ত অন্যান্য রাজ্য থেকে যারা আসছেন তাঁদের ওপরও নজরদারি চলবে। বাইরের রাজ্য থেকে যাঁরা ফিরছেন তাদের তথ্য সংগ্রহ করার পাশাপাশি তাদের শারীরিক পরীক্ষাও করা হবে। রাতের অন্ধকারে বাসে চড়ে অনেক ব্যক্তি ভিন রাজ্য থেকে আসছেন। তাদের নজরে রাখা হচ্ছে। তাদের শারীরিক পরীক্ষা করিয়ে আপাতত হোম কোয়ারান্টিনে থাকতে বলা হচ্ছে।

জেলাশাসক জানান, প্রতিদিনই তীর্থযাত্রী বোঝাই বাস ঢুকছে। প্রয়োজনে সেই বাসগুলিকে পথসাথীতে দাঁড় করিয়ে সকলের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। থার্মাল স্ক্রিনিং চলবে। বর্ধমানের বুদবুদ, মেমারি, শক্তিগড়, খন্ডঘোষে পথসাথী রয়েছে। সেগুলিকে এই কাজে ব্যবহার করা হবে। বিদেশি পর্যটকদের জেলায় পাওয়া গেলে তাদের সরাসরি আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নদীয়ার নবদ্বীপ মায়াপুর থেকে অনেক বিদেশি পর্যটক কালনায় আসে। তাদের ওপর বিশেষ নজরদারির ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জেলা শাসক জানান, অনেকে স্হানীয় বাসিন্দাদের বাধায় হোম কোয়ারান্টিনেও থাকতে পাচ্ছেন না। বাইরে থেকে এসে বিক্ষোভের মুখে পড়ছেন। এলাকা ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন। অশান্তির মুখে পড়ছেন। তাদের যাতে আইসোলেশন ওয়ার্ড বা কোয়ারান্টিনে রাখা যায় তার ব্যবস্থা হচ্ছে। সব মিলিয়ে বাসিন্দাদের অযথা আতংকিত না হয়ে সতর্ক ও সচেতন থাকার পরামর্শ দিচ্ছে জেলা প্রশাসন। পরিস্থিতির অবনতি হলে থাকছে আপতকালীন ব্যবস্থাও। আপাতত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর।

Saradindu Ghosh

First published: March 20, 2020, 6:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर