• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • দাড়িভিটের ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষককে সাসপেন্ড করল স্কুল শিক্ষা দফতর

দাড়িভিটের ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষককে সাসপেন্ড করল স্কুল শিক্ষা দফতর

  • Share this:

    #শ্রীরামপুর: দাড়িভিটের ঘটনায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষককে সাসপেন্ড করল স্কুল শিক্ষা দফতর। প্রধান শিক্ষক অভিজিৎ কুণ্ডু ও সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল হুদার জবাবে খুশি নয় দফতর। সেকারণেই এই সিদ্ধান্ত। ডিআই-র বিরুদ্ধেও তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

    উর্দু ও সংস্কৃত শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে উত্তর দিনাজপুরের দাড়িভিট হাইস্কুল। মৃত্যু হয় স্কুলের দুই প্রাক্তন ছাত্রের. সেই ঘটনাতেই এবার স্কুলের প্রধান শিক্ষক অভিজিৎ কুণ্ডু ও সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল হুদাকে সাসপেন্ড করল স্কুল শিক্ষা দফতর।

    ঘটনার পর থেকেই বেপাত্তা ছিলেন প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক। স্কুল শিক্ষা দফতরের আধিকারিকরা তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেও প্রচুর অসংগতি পাওয়া গিয়েছে। সাসপেন্ডেড ডিআই রবীন্দ্রনাথ ঘোষ দাবি করেছিলেন, স্কুল থেকেই শিক্ষক নিয়োগের রিকুইজিশন পাঠানো হয়।

    যদিও উর্দু ও সংস্কৃত শিক্ষকের রিকুইজিশন কেন দেওয়া হয়েছিল, এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক। সেকারনেই তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত দু’জনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর। দু’জনের কর্তব্যে গাফিলতির প্রমাণও মিলেছে।

    দাড়িভিট স্কুলের পরিচালন কমিটি আগেই ভেঙে দিয়েছিল স্কুল শিক্ষা দফতর। নতুন পরিচালন কমিটি তৈরির কোনও প্রস্তাব আসেনি। তাই আপাতত মহকুমাশাসকই স্কুলের প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করবেন।

    স্কুলের অচলাবস্থা কাটাতে ডাকা বৈঠক বারবার ভেস্তে গেছে। সিবিআই তদন্তের দাবিতে অনড় অভিভাবকরা। সামনেই মাধ্যমিক পরীক্ষা। পুজোর ছুটির পরই স্কুল খোলা নিয়ে অভিভাবকদের সহযোগিতা চেয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

    ডিআই রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে ইতিমধ্যেই সাসপেন্ড করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্তে ডিসিপ্লিনারি কমিটিও তৈরি হয়েছে। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে ডিআই-র বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ করতে পারে স্কুল শিক্ষা দফতর।

    First published: