মাঝরাতে হঠাৎ দরজায় টোকা, দরজা খুলতেই হতবাক ! শীতে কাঁপছে এটা কে?

মাঝরাতে হঠাৎ দরজায় টোকা, দরজা খুলতেই হতবাক ! শীতে কাঁপছে এটা কে?

বাড়ির কলতলায় বসে শীতে কাঁপছে একটি হনুমান। অঙ্গভঙ্গিতে কিছু একটা বোঝানোর আপ্রাণ চেষ্টা।

  • Share this:

Supratim Das

#বীরভূম: মাঝরাতে হঠাৎ বাড়িতে অতিথি। অনাহুত হলেও , আপ্যায়নে ত্রুটি রাখেনি সিউড়ির দাস পরিবার। শীতে থর-থর অতিথিকে গরম চাদর, দুধ, গরম জল দিয়ে উষ্ণতায় মুড়ে দিলেন পরিবারের সদস্যরা। একটু চাঙ্গা হতেই অবশ্য দে-চম্পট। ক্ষণিকের অতিথির জন্য এখন মন খারাপ পরিবারের সদস্যদের।

মাঝরাতে হঠাৎ দরজায় টোকা। আমল দেননি কেউ। পরে দরজা খুলে হতবাক সিউড়ির কড়িধ্যার বাঁধের পারের বাসিন্দা মুক্তিপদ দাস । তাঁর বাড়ির কলতলায় বসে তখন শীতে কাঁপছে একটি হনুমান। অঙ্গভঙ্গিতে কিছু একটা বোঝানোর আপ্রাণ চেষ্টা।

সময় নষ্ট না করে তার হনুমানের পরিচর্যায় লেগে পড়েন পরিবারের সদস্যরা। হনুমানের শরীরে গরম চাদর জড়িয়ে, তাকে গরম দুধ খেতে দেন পরিবারের সদস্য আলো দাস।

চাদরেও কাটেনি ঠান্ডা। শেষে তাকে কোলে নিয়ে বসে পড়েন আলো। দাঁত ব্রাশও করিয়ে দেন। গরম জল দিতেই, তাতে মুখ ডুবিয়ে আরাম খোঁজে হনুমান বাবাজি। তখনই পরিবারের সদস্যদের চোখে পড়ে হনুমানটির পায়ে ও ল্যাজে আঘাতের চিহ্ন । চিকিৎসার জন্য খবর দেওয়া হয় বন দফতরে।

বনকর্মীরা আসার আগেই অবশ্য গরম দুধ, কলা খেয়ে একটু চাঙ্গা হয়েই পগার-পার। খেয়ালী হনুমান বাড়ি ছাড়লেও, তার জন্য এখন মন খারাপ সিউড়ির কড়িধ্যার দাস পরিবারের।

First published: 04:39:02 PM Dec 17, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर