বাড়িতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্রে জখম হলদিয়ার ছাত্রী

বাড়িতে থাকা আগ্নেয়াস্ত্রে জখম হলদিয়ার ছাত্রী

হলদিয়া গুলিকাণ্ডের রহস্যভেদ করল পুলিশ। বাইরে থেকে নয়। বাড়িতে থাকা বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্রের গুলিতেই কারিশমা খাতুন জখম হয়।

  • Share this:

#হলদিয়া: হলদিয়া গুলিকাণ্ডের রহস্যভেদ করল পুলিশ। বাইরে থেকে নয়। বাড়িতে থাকা বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্রের গুলিতেই কারিশমা খাতুন জখম হয়। আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে খেলার সময়ই দুর্ঘটনা বলে দাবি পুলিশের। আঘাতের ধরন, ছাত্রী ও তাঁর বাবার বয়ানের ভিত্তিতে এই বিষয়ে নিশ্চিত পুলিশ। জখম ছাত্রীর বাবা কায়ুম মল্লিককে গ্রেফতার করা হতে পারে।

জখম ছাত্রীর পরিবারের দাবি ও পারিপার্শিক প্রমাণের অমিলই হলদিয়া গুলিকাণ্ডের রহস্যভেদ করল। দোতলার ঘরে পড়তে বসে করিশমা গুলিবিদ্ধ হন। জানলা দিয়ে কেউ গুলি করে বলে অভিযোগ তাঁর পরিবারের। তদন্তে নেমে বেশ কয়েকটি বিষয়ে পুলিশের সন্দেহ হয়।

কেন সন্দেহ?

- জানলার সঙ্গে কোণাকুণি বসেছিলেন করিশমা

- জানলা দিয়ে গুলি করলে যে ধরনের ক্ষত হয়, এই ক্ষেত্রে তা হয়নি

- লাগোয়া বাড়ি থাকা সত্বেও প্রতিবেশীরা আততায়ীকে দেখেননি

- ক্ষতের ধরন অনুযায়ী ছাত্রী আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টাও করেননি

খুন বা আত্মহত্যার চেষ্টা দুই সম্ভাবনা না থাকায় তৃতীয় সম্ভাবনা অর্থাৎ দুর্ঘটনার বিষয়টি খতিয়ে দেখেন তদন্তকারীরা। এই বিষয়ে চিকিৎসকদের পরামর্শও নেওয়া হয়। চিকিৎসকদের মতে, খেলার সময় হঠাৎ গুলি চললে এই ধরনের ক্ষত হতে পারে ৷

এরপরই করিশমা খাতুন ও তার বাবা কায়ুম মল্লিককে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। কায়ুমের আগ্নেয়াস্ত্র রাখার শখ ও ঝোঁক আছে বলে জানতে পারে পুলিশ। দু'জনকে জেরা করে পুলিশ জানতে পারে,

- বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ছাত্রী আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে খেলছিল

- তখনই আগ্নেয়াস্ত্র থেকে গুলি ছিটকে করিশমা জখম হয়

- আগ্নেয়াস্ত্রটি বেআইনি হওয়ায় মিথ্যে গল্প তৈরি করা হয়

- তদন্তকারীদের ভুল পথে চালনা করতেই ভুল তথ্য দেওয়া হয়

মেয়েটির বাবার বিরুদ্ধে বাড়িতে বেআইনি অস্ত্র রাখার মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

First published: 02:28:58 PM Jan 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर