Home /News /south-bengal /
Haldia Murder: চতুর্থবার বিবাহিত মহিলাকে বিয়ের প্রস্তাব, 'না' শুনে গলার নলি কেটে খুন করে ধৃত যুবক!

Haldia Murder: চতুর্থবার বিবাহিত মহিলাকে বিয়ের প্রস্তাব, 'না' শুনে গলার নলি কেটে খুন করে ধৃত যুবক!

ধৃত রঞ্জন মান্নাকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে হলদিয়া আদালত

ধৃত রঞ্জন মান্নাকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে হলদিয়া আদালত

Murder: ওই মহিলা ও রঞ্জন দু’জনই বিবাহিত। প্রায় দু’বছর ধরে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তাঁরা।

  • Share this:

#হলদিয়া: সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে হলদিয়ার এক মহিলাকে খুনের ঘটনা। পুলিশি তদন্তে উঠে আসা একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সাংবাদিক বৈঠক করে প্রকাশ করলেন হলদিয়ার এসডিপিও রাহুল পাণ্ডে। ধৃত যুবক রঞ্জন মান্নাকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে হলদিয়া আদালত। পুলিশ জানিয়েছে, বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতেই খুন করা হয় মহিলাকে। ভগবানপুরের বাড়ি থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে, হলদিয়ার নদীর তীরেই গলার নলি কেটে মহিলাকে খুন করে অভিযুক্ত যুবক।

এক সপ্তাহ আগেই হলদিয়ার ভবানীপুরের বাঁশখানা গ্ৰামে নৃশংসভাবে খুন হন এক মহিলা। মৃত মহিলার পরিচয় জানা যায়নি। গত ২৩ এপ্রিল মৃতার পরিবার ভগবানপুর থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করলে সেই সূত্র ধরেই মৃতার পরিচয় জানতে পারে পুলিশ।

আরও পড়ুন- মহম্মদপুর নাম 'দাসত্বের প্রতীক'! তাই গ্রামের নাম বদলে নয়া হোর্ডিং লাগাল বিজেপি!

পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুর থানার অন্তগর্ত মনিরামচকের বাসিন্দা ওই মহিলাকে নিখুঁত পরিকল্পনা করেই খুন করা হয়েছে বলে সাংবাদিক বৈঠকে জানান হলদিয়ার এসডিপিও। এই খুনের ঘটনার মূল অভিযুক্ত পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানার খড়িকা গ্ৰামের বাসিন্দা পেশায় গ্রিল ব‍্যাবসায়ী ৩৬ বছর বয়সী রঞ্জন মান্নাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, একাধিক বিয়ে করেছে রঞ্জন মান্না। পাশাপাশি একাধিক মহিলার সঙ্গে গোপনে প্রেমও করত সে। প্রেম ও পরকীয়ার সূত্র ধরেই চতুর্থ বিয়ে করতে চেয়েছিল বিবাহিতা এই মহিলাকে।

কিন্তু রঞ্জনের বিয়ের প্রস্তাব প্রত‍্যাখান করেন ওই মহিলা। এরপরই মহিলার অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ভাইরাল করার হুমকি দেয় রঞ্জন। হুমকির পরেও বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তাঁদের দু’জনের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের আপত্তিকর কিছু ছবি স্যোশাল মিডিয়ায় রঞ্জন পোস্ট করে বলে অভিযোগ।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার দিন অভিযুক্তের মোটরবাইকে চেপে মহিলা বাজকুলের আত্মীয়ের বাড়িতে আসেন। সেখান থেকে হলদিয়ায় একটি অনুষ্ঠানে যান। হলদিয়ার হলদি নদীর তীরে দাঁড়িয়ে শেষ বারের মতো তাঁকে বিয়ে করবে কিনা জিজ্ঞেস করে রঞ্জন। কোনওভাবেই রঞ্জনের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পেছন থেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলার নলি কেটে মহিলাকে খুন করে অভিযুক্ত।  মৃতদেহ নদী তীরবর্তী গ্রামের রাস্তায় ফেলে টিস‍্যু পেপার দিয়ে অস্ত্রটি থেকে রক্ত মুছে ফেলে, পরণের পোশাক খুলে খালি গায়ে সোজা বাইক চালিয়ে সবংয়ে নিজের বাড়িতে ফিরে যায় রঞ্জন। পুলিশের হাতে ধরা পড়ে রঞ্জন নিজের অপরাধ স্বীকার করেছে বলে জানান এসডিপিও রাহুল পাণ্ডে।

আরও পড়ুন- কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলাবেন না পিকে, প্রথম দিনই 'ভবিষ্যদ্বাণী' করেন রাহুল গান্ধি

যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মহিলাকে খুন করা হয়, সেই অস্ত্র ঘটনার দু’দিন আগে স্থানীয় একটি দোকান থেকেই সে কেনে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গত ২০ এপ্রিল, বুধবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ হলদি নদী সংলগ্ন সাধনা ইট ভাটা লাগোয়া বাঁশখানা গ্রামের রাস্তার ওপরই মহিলাকে গলার নলি কাটা অবস্থায় পাওয়া যায়।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই মহিলা ও রঞ্জন দু’জনই বিবাহিত। প্রায় দু’বছর ধরে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তাঁরা। মৃতের ভাই জানিয়েছেন, তিনি কর্মসূত্রে মুম্বইয়ে থাকেন। একমাস আগেই বিয়ের জন‍্য বাড়ি ফিরেছেন তিনি। বোন নিখোঁজ হওয়ার খবর পেয়ে বিভিন্ন আত্মীয়দের বাড়িতে খোঁজ খবর শুরু করেন তিনি। শেষে বাজকুলে এক দূর সম্পর্কের বোনের সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পারেন বুধবার বিকেল নাগাদ এক যুবক মহিলার নাম করে ফোন করে বাড়িতে আসতে চেয়েছিল। তারপর থেকে ওই নম্বরে ফোন করে আর উত্তর পাওয়া যায়নি।

মৃতার স্বামী জানান, স্ত্রীর অন‍্য যুবকের সঙ্গে সম্পর্কের কথা তিনি আগেই জানতে পেরেছিলেন। একাধিকবার বকাবকি এমনকি মারধরও করেছেন তিনি। এই মর্মান্তিক খুনের ঘটনায় অভিযুক্তের ফাঁসির দাবি করছেন মৃতের পরিবারের সদস‍্যরা।

Sujit Bhowmik

Published by:Madhurima Dutta
First published:

Tags: Haldia, Murder

পরবর্তী খবর