মুখে মাস্ক না থাকলে মিলছে না মুদিখানার সামগ্রী ! নোটিস টানালেন দোকানদার !

অত্যাবশকীয় পন্যের মধ্যে মুদির দোকান ছাড় পেয়েছে লকডাউনে। তার মধ্যেই বাধ্যতামূলক করা হয়েছে মাস্ক।

অত্যাবশকীয় পন্যের মধ্যে মুদির দোকান ছাড় পেয়েছে লকডাউনে। তার মধ্যেই বাধ্যতামূলক করা হয়েছে মাস্ক।

  • Share this:

#শ্রীরামপুর: অত্যাবশকীয় পন্যের মধ্যে মুদির দোকান ছাড় পেয়েছে লকডাউনে। তার মধ্যেই বাধ্যতামূলক করা হয়েছে মাস্ক।  বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে বহুবার জানানোর পরেও অসর্তক সমাজের একাংশ। বৃহস্পতিবার শ্রীরামপুরের একটি দোকানে প্রচুর ক্রেতার দেখা মিললেও অনেকেই অবাক হলেন। লকডাউনের সময়ে রোজের নতুন নতুন অভিজ্ঞতার মধ্যে সেও এক অভিজ্ঞতা।  সবার হাতে বাজারের ব্যাগ, পকেটে টাকা তাও কেন ফিরতে হল দুই-একজনকে? প্রথমে অনেকের বিশ্বাস হয়নি দীর্ঘদিনের পরিচিত প্রায় কুড়ি বছরের দোকানের সম্পর্কে।  পরে বিশ্বাস হল একটি পোস্টার দেখে। দোকানের সামনে একটি দরজায় একটি মাত্র পোস্টার দেওয়া " নো মাস্ক, নো গুডস"।

সেটি দেখে অনেকের অবাক লাগলেও পরে সেটি দেখে বেশিভাগই সাধুবাদ জানাচ্ছেন।  সকালে ব্যাগ হাতে আসেন রাহুল সাহা, তার কাছে বাজারের ব্যাগ সহ লম্বা লিস্ট থাকলেও কিছুই মেলেনি। দোকানের মালিক সঞ্জয় ব্যানার্জি জানিয়েছেন আগে পোস্টার দেখুন পরে জিনিস। একইভাবে রোজ এই দোকানেই আসেন সীমা সাহা। তার মুখেও ছিল না মাস্ক। তিনি জানান, মাস্ক তো বাইরে বেরলে, বাড়ির সামনে দোকান করতে গেলেও মাস্ক! সেটা আবার কবে হল। এই সবশুনে কিছুক্ষণ পরে মাস্ক নিয়ে কিনলেন খাদ্য সামগ্রী। সঞ্জয় বাবু জানান এই ভাবনা আসলে আসেছে তার ছেলে সুজয়ের থেকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় মাস্ক বাধ্যতামূলক করার পরই তা মনে হয় রাস্তায় বিভিন্ন ব্যাক্তির সচেতনতার অভাব রয়েছে, তাই নিজের এলাকায় একটু হুশ ফেরাতে ছোট্ট পদক্ষেপ।

SUSOBHAN BHATTACHARYA 

Published by:Piya Banerjee
First published: