• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • #EgiyeBangla: তৈরি হল তাপসী মালিক কৃষক বাজার, ন্যায্য দাম পাচ্ছেন কৃষকরা

#EgiyeBangla: তৈরি হল তাপসী মালিক কৃষক বাজার, ন্যায্য দাম পাচ্ছেন কৃষকরা

শহিদ তাপসী মালিকের নামে তৈরি হয়েছে কৃষক বাজার ৷ নিজস্ব চিত্র ৷

শহিদ তাপসী মালিকের নামে তৈরি হয়েছে কৃষক বাজার ৷ নিজস্ব চিত্র ৷

ফড়েদের দাপট এড়িয়ে এখানে সরাসরি শাক-সবজি বিক্রি করছেন কৃষকরা। পাচ্ছেন ন্যায্য দাম। সেই সবজিই আসছে কলকাতার বাজারে। ফসল নষ্ট হওয়ার ভয় কমেছে। কৃষক বাজারে কর্মী নিয়োগে বেড়েছে কর্মসংস্থানও।

  • Share this:

    #সিঙ্গুর: কৃষকদের চাষে আগ্রহ বাড়াতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার। সিঙ্গুর আন্দোলনের প্রথম শহিদ তাপসী মালিকের নামে তৈরি হয়েছে কৃষক বাজার। ফড়েদের দাপট এড়িয়ে এখানে সরাসরি শাক-সবজি বিক্রি করছেন কৃষকরা। পাচ্ছেন ন্যায্য দাম। সেই সবজিই আসছে কলকাতার বাজারে। ফসল নষ্ট হওয়ার ভয় কমেছে। কৃষক বাজারে কর্মী নিয়োগে বেড়েছে কর্মসংস্থানও। জমি থেকে ফসল তুলে কলকাতার বাজারে বিক্রি করতে আসতেন কৃষকরা। একদিকে যেমন সময় বেশি লাগত। তেমনি শাক-সবজি নষ্টও হত অনেকটা। বাধ্য হয়ে ফড়েদের কম দামে বিক্রি করে দিতেন কৃষকরা। সেই সমস্যা সমাধানে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় তৈরি হয়েছে ১৯৭টি কৃষক বাজার। মুখ্যমন্ত্রী ক্ষমতায় আসার পর সিঙ্গুর আন্দোলনের প্রথম শহিদ তাপসী মালিকের নামে ২০১৪ সালের পয়লা মার্চ তৈরি হয়েছে কৃষক বাজার। ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি থেকে এই কিষাণ মাণ্ডি থেকে এলাকার কৃষকদের উৎপাদিত ফসল কন্টেনারে করে কলকাতার বাজারে আনা হচ্ছে। জাপানের একটি সংস্থার সঙ্গে যৌথভাবে চলছে এই কৃষক বাজার। হুগলি জেলায় মোট ৯টি কিষাণ মাণ্ডি তৈরি হয়েছে।

    আরও পড়ুন: #EgiyeBangla: নন্দীগ্রামে উন্নত চিকি‍ৎসা পরিষেবা, তৈরি হল আধুনিক সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল

    তাপসী মালিক কৃষক বাজার -------------------- - উ‍ৎপাদিত ফসল কৃষক বাজারে আনছেন কৃষকরা - ১৫০ জন কর্মী কৃষক বাজারে কাজ করেন - তাঁরাই ন্যায্য দামে কৃষকদের থেকে ফসল কিনছেন - এরপর সেই ফসল কলকাতা ও হাওড়ার বিভিন্ন বাজারে আসছে - সমস্ত ফসল বিক্রি হওয়ায় নষ্ট হচ্ছে না - ফড়েদের কম দামে ফসল বিক্রি করতে হচ্ছে না

    স্থানীয় কৃষক পান্নালাল কোলে বললেন, ‘‘চাষে আগ্রহ বেড়েছে, আগে ফেলে দিত অনেক ফসল, এখন একবেলাতেই সব বিক্রি হয়ে যায় ৷’’কৃষক বাজারে কর্মী নিয়োগ হওয়ায় বেড়েছে কর্মসংস্থানও। স্বনির্ভর হয়েছেন স্থানীয় মানুষজন। কৃষক বাজারে সবজি বিক্রি ছাড়াও আরও একাধিক সুবিধা পাচ্ছেন কৃষকরা। পশ্চিমবঙ্গ খেতমজুর কিষাণ সংগঠনের রাজ্য সভাপতি বেচারাম মান্না বললেন, ‘‘কম্পিউটার বসানো আছে, কৃষকরা দাম জানতে পারবেন ৷ স্টোর করে রাখতে পারবে ফসল।’’ এছাড়াও কৃষক বাজার থেকে কৃষিকাজে সুবিধার জন্য বিভিন্ন যন্ত্রপাতি, দানা, সার, কীটনাশক,ওষুধ-সহ একাধিক জিনিস দেওয়া হচ্ছে। কৃষকদের চিন্তা দূর হয়েছে। আরও বেশি করে সোনা ফলাচ্ছেন কৃষকরা।

    First published: