পুলিশের ভূমিকায় প্রশ্ন, 'আত্মঘাতী' যুবক, গ্রেফতার যুবতী

পুলিশের ভূমিকায় প্রশ্ন, 'আত্মঘাতী' যুবক, গ্রেফতার যুবতী

মেদিনীপুরে যুবক খুনের ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

  • Share this:

#মেদিনীপুর: মেদিনীপুরে যুবক খুনের ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। ধৃত যুবতীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার বদলে কেন খুনের ধারায় মামলা করা হল, সেই প্রশ্নও তুলছেন আইনজীবীদের একাংশ। ঘটনায় অভিযুক্ত যুবতীর পাশে দাঁড়িয়ে প্রকৃত তদন্তের দাবি জানিয়েছে ঘাটাল বার অ্যাসোসিয়েশনও।

রবিবার মেদিনীপুর শহরে যুবতীর বাড়ির সামনে এসে আত্মহত্যা করেছিলেন বোলপুরের বাসিন্দা চৌধুরি হাসান্নুজ। তদন্তে নেমে যুবতীকেই গ্রেফতার করে পুলিশ। যুবকের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর বিরুদ্ধে ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রুজু হয়। মেদিনীপুর আদালতের নির্দেশে আপাতত তিনি দু'দিনের পুলিশ হেফাজতে। এই ঘটনাতেই পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন আইনজীবীদের একাংশ।

 যুবতীর পরিবারের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই তাঁকে উত্যক্ত করতেন হাসান্নুজ। কিন্তু কোনও সাড়া না পেয়েই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন ওই বিএড পড়ুয়া।

 অভিযুক্ত যুবতী ঘাটাল মহকুমা আদালতের কর্মী। সেই সুবাদে তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে প্রকৃত তদন্তের দাবি জানিয়েছে ঘাটাল বার অ্যাসোসিয়েশন।

 রবিবার রাতেই অভিযুক্ত মহিলাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবদ করে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। সোমবার সকালেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। কোন তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হল, এবার সেই প্রশ্নের মুখে তদন্তকারীরা।

First published: 12:44:17 PM Feb 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर