Home /News /south-bengal /
Berhampore Garbage Problem: আবর্জনার গ্রাস থেকে মুক্তি পেয়ে স্বাস্থ্যকর পরিবেশে বেঁচে থাকার আর্জি এলাকাবাসীদের

Berhampore Garbage Problem: আবর্জনার গ্রাস থেকে মুক্তি পেয়ে স্বাস্থ্যকর পরিবেশে বেঁচে থাকার আর্জি এলাকাবাসীদের

অভিযোগ, অনেক প্রতিবাদ, বিক্ষোভ সত্ত্বেও নির্বিকার প্রশাসন

অভিযোগ, অনেক প্রতিবাদ, বিক্ষোভ সত্ত্বেও নির্বিকার প্রশাসন

Berhampore Garbage Problem: একাধিকবার আবর্জনাস্তুপ অপসারণের দাবি জানিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ। এই আবর্জনার গ্রাস থেকে তাঁদের উদ্ধার করে একটু স্বাস্থ্যকর পরিবেশে বেঁচে থাকার আর্জি সকল এলাকাবাসীর।

  • Share this:

বহরমপুর : স্তূপের আকারে জমে আছে শহরের সমস্ত নোংরা আবর্জনা। এই ভাগারের জন্য শারীরিকভাবে হয়ে অসুস্থ পড়ছেন একাধিক এলাকাবাসী। এমনই ছবি বহরমপুরের কাশিমবাজার (Berhampore, Cossimbazar) কালিকাপুর কদমখালির। নোংরা আবর্জনা থেকে ছড়িয়ে পড়া দুর্গন্ধে টেকা দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে এলাকাবাসীদের। অভিযোগ, অনেক প্রতিবাদ, বিক্ষোভ সত্ত্বেও নির্বিকার প্রশাসন। একাধিকবার আবর্জনাস্তুপ অপসারণের দাবি জানিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ। এই আবর্জনার গ্রাস থেকে তাঁদের উদ্ধার করে একটু স্বাস্থ্যকর পরিবেশে বেঁচে থাকার আর্জি সকল এলাকাবাসীর।

আরও পড়ুন : যত ভোট আসবে... তত ঢোল বাজবে', কেন্দ্র-রাজ্যকে এক বাণে বিঁধলেন অধীর চৌধুরী!

স্তুপের আকারে জমে আছে নোংরা। যা থেকে প্রতি নিয়ত ছড়িয়ে পড়ছে দুর্গন্ধ। এই স্তূপের মধ্যেই জমে থাকা জলে জন্মাচ্ছে নানা পোকা। আবর্জনার আস্তাকুঁড়ে জেরবার কাশিমবাজার কালিকাপুর কদমখালির বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ, ভোট আসে, ভোট যায়, প্রতিশ্রুতি পায় মানুষ। কিন্তু কালিকাপুর কদমখালিতে আজও একইভাবে পড়ে রয়েছে নোংরা আবর্জনার স্তুপ। বর্তমানে করোনার প্রকোপ, তার উপরে ডাম্পিং-এর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে যেন দম বন্ধ হয়ে আসছে কালিকাপুর কদমখালি এলাকার মানুষজনের। স্থানীয় বাসিন্দা অতীন্দ্র ভৌমিক বলেন, ‘‘ দীর্ঘ দিন থেকে একই ভাবে পড়ে রয়েছে নোংরা আবর্জনার স্তুপ।’’ প্রশাসনের তৎপরতায় এই এই ভাগার অপসারণের দাবি জানান তিনি। স্থানীয় বাসিন্দা মালতী হাজরা বলেন,  ‘‘ দুর্গন্ধে বাড়িতে টেকা দায়। দীর্ঘ বছর ধরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে অসুস্থ হয়ে মৃত্যু পর্যন্ত হচ্ছে। কখনও আবার সেখানে আগুন লেগে যাচ্ছে,  সেই বিষাক্তকর ধোঁয়ায় প্রায় দম বন্ধ হয়ে আসছে।’’

আরও পড়ুন : গঙ্গাসাগরের পরেও সংক্রমণের হার ৩ শতাংশ, 'অভিষেক মডেল'-এ আলো দেখছে ডায়মন্ড হারবার

তবে এই ভাগার নিয়ে রাজ্য সরকারের ব্যর্থতাকেই বিঁধলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। ভাগার মুক্ত, জঞ্জাল মুক্ত বহরমপুর শহর গঠনের দাবি জানান তিনি। যদিও বহরমপুর পুরসভার মুখ্য উপদেষ্টা নাড়ু গোপাল মুখোপাধ্যায় বলেন,  ‘‘ পুরসভা তৃণমূলের দখলে আসার দীর্ঘ ৩০ বছর আগে থেকেই ভাগারের সমস্যা। তবে স্তুপাকার আবর্জনা জমে রয়েছে।’’ পাশেই অতিরিক্ত জমি কেনার পরিকল্পনা চলছে। খুব দ্রুত কাজ শুরু হবে বলে জানান তিনি।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Berhampore

পরবর্তী খবর