মেলায় চলছিল লাখ লাখ টাকার জুয়ায় আসর, পুলিশ যেতেই ধুন্ধুমার কাণ্ড!

মেলায় চলছিল লাখ লাখ টাকার জুয়ায় আসর, পুলিশ যেতেই ধুন্ধুমার কাণ্ড!

সন্ধে থেকেই শুরু হয়েছিল জুয়ার আসর। রাতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তার রমরমা বাড়ছিল।

  • Share this:

#বর্ধমান:  হরিনাম সংকীর্তন উপলক্ষে মেলা। সেই মেলাতেই নাকি চলছিল লাখ লাখ টাকার জুয়ায় আসর। সেই খবর পেয়ে মেলায় পুলিশ যেতেই ঘটলো ধুন্ধুমার কান্ড। ভাঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়ি। বেদম মারধর করা হয় পুলিশ কর্মীদের। পূর্ব বর্ধমানের মন্তেশ্বরে এই ঘটনাকে ঘিরে সরগরম এলাকা।

সন্ধে থেকেই শুরু হয়েছিল জুয়ার আসর। রাতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তার রমরমা বাড়ছিল। মেলার মাঠে ছড়িয়ে ছিটিয়ে চলছিল জুয়ায় বোর্ড।  গোপন সূত্রে সেই খবর পৌঁছে যায় মন্তেশ্বর থানায়।  জুয়া বন্ধ করতে অভিযানে নামে পুলিশ। কিন্তু মেলার মাঠে পা দিতেই হামলার সামনে পড়তে হয় পুলিশকে। জুয়াড়ি ও গ্রামবাসীদের হাতে আক্রান্ত হলো পুলিশ। ভাঙচুর করা হয়েছে পুলিশের গাড়ি।  বুধবার গভীর রাতে পূর্ব বর্ধমান জেলার মন্তেশ্বর থানার মামুদপুর ২ অঞ্চলের মথুরাপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে।

এই ঘটনায় পুলিশের দুজন সাব ইন্সপেক্টর এবং একজন সিভিক গুরুতর জখম হয়েছেন। তাঁদের চিকিৎসার জন্য বর্ধমানের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পুলিশ ও গ্রামবাসীদের সংঘর্ষের ঘটনায় রাত থেকেই এলাকায়  তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি  হয়। জখম দুই পুলিশ কর্মী প্রশান্ত প্রামানিক ও ইদ্রিস শেখ এবং সিভিক ভলেনটিয়ারের নাম শেখ মোস্তফা।

গতকাল রাতে মথুরাপুর গ্রামে মেলা উপলক্ষে বিরাট জুয়ার আসর চলছে বলে পুলিশের কাছে খবর যায়। সেই খবর পেয়ে মন্তেশ্বর থানার ওসি সৈকত মন্ডলের নেতৃত্বে পুলিশের একটি বাহিনী ওই গ্রামে অভিযানে যায়। পুলিশ কে দেখে জুয়াড়ি ও গ্রামবাসীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে। অন্ধকার থেকে ইট পাথর ধেয়ে আসে। বাঁশ লাঠি দিয়ে মারধর শুরু হয়। জখম হন বেশ কয়েক জন পুলিশ কর্মী। তখনকার মতো পিছু হটে পুলিশ। এরপর আশপাশ থানা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় যায়। অভিযান চালিয়ে এগার জনকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের বৃহস্পতিবার কালনা মহকুমা আদালতে তোলা হয়। পাঁচ জনকে হেফাজতে চেয়েছে পুলিশ।

First published: February 27, 2020, 3:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर