দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিঘায় রাজনীতির বাজার গরম, প্রাক্তন বাম বিধায়ক যোগ দিলেন বিজেপিতে, ২০২১ এর ভোটে প্রার্থী হতে পারেন পদ্ম প্রতীকে!

দিঘায় রাজনীতির বাজার গরম, প্রাক্তন বাম বিধায়ক যোগ দিলেন বিজেপিতে, ২০২১ এর ভোটে প্রার্থী হতে পারেন পদ্ম প্রতীকে!

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মধ্যে চরম উত্তেজনা ৷

  • Share this:

# দিঘা :  জল্পনা ছিলই! শেষ পর্যন্ত সেই জল্পনাকে সত্যি করেই বিজেপিতে যোগ দিলেন রামনগর বিধানসভার প্রাক্তন বাম বিধায়ক স্বদেশ নায়েক! কলকাতায় আজ বিজেপির রাজ্য দপ্তরে আনুষ্ঠানিক ভাবেই বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন প্রাক্তন এই বিধায়ক। যিনি  ২০০৬ সালে রামনগর কেন্দ্র থেকে ভোটে জিতে বাম বিধায়ক হয়েছিলেন, সেই স্বদেশ নায়েকের যোগদান সম্ভাবনা নিয়ে জেলার রাজনৈতিক মহলে আলোচনা চলছিলই!

সেই আলোচনা আর জল্পনার মধ্যেই দলের রাজ্য সম্পাদক দিলীপ ঘোষের হাত থেকে বিজেপির পতাকা তুলে নেন স্বদেশ নায়েক। তাঁর এই যোগদানের সঙ্গে সঙ্গে নিজের পুরনো বিধানসভা কেন্দ্র রামনগর থেকে বিজেপির প্রতীকে ২০২১ সালে ভোট প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন স্থানীয় রাজনৈতিক মহল। যা নিয়ে স্বদেশের স্পষ্ট কথা, বিজেপি নেতৃত্ব চাইলে তিনি প্রার্থী হতে রাজী। তবে প্রার্থী না হলেও একুশের ভোটে দলের হয়ে ময়দানে নেমে কাজ করাই তাঁর আসল লক্ষ্য বলে তিনি জানিয়েছেন। তাঁর কথায়, তৃনমুলকে ক্ষমতাচ্যুত করার লড়াইয়ে নিজেকে সামিল করলাম। এদিকে, ২০০৬ সালের বিধানসভা ভোটে তৃনমুলের যাঁকে হারিয়ে স্বদেশ নায়েক বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন,  তৃনমুলের সেই অখিল গিরি বর্তমানে রামনগরের বিধায়ক আছেন। স্বদেশের বিজেপিতে যোগদান করা নিয়ে অখিলের বক্তব্যঃ লোকটা সুবিধাবাদী আছেন। খুব সুযোগ সন্ধানীও। ২০০৬ সালের মতো ২০২১ সালে দুজনের দ্বৈরথ হলে তিনিই এগিয়ে থাকবেন বলেও এদিন দাবি করেন অখিল গিরি। যদিও, রামনগর বিধানসভা আসনে বিজেপি অনেক এগিয়ে এবং অখিল গিরি পিছিয়ে আছেন বলে পাল্টা দাবি করেছেন স্বদেশ নায়েক।

এদিকে দিলীপ ঘোষের  গড়ে আবার ভাঙ্গন এবার বিজেপির স্পোর্টস সেলের জেলা সম্পাদক এবং  জেলার বিজেপির মহিলা নেত্রী  বিশিষ্ট আইনজীবী সহ ৭০ জন তৃণমূলে যোগ  দিলেন । শুক্রবার খড়্গপুরের ইন্দা পেট্রোল পাম্পের কাছে একটি সভাতে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন  বেশ কয়েকজন । অন্যদিকে এই তৃণমূলের সভামঞ্চ থেকে মাত্র ১০০ মিটার দূরে খড়গপুর গ্রামীণ থানা । এই গ্রামীণ থানার ১  মৃত পুলিশকর্মীকে শ্রদ্ধা জানানোর সময় প্রচণ্ড মাইকের শব্দ শুনে ক্ষুব্ধ  হলেন  পুলিশ সুপার কাজী সামসুদ্দিন আহমেদ । যদিও এই ব্যাপারে ক্যামেরার সামনে কিছু বলতে চাননি  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ।

SUJIT BHOWMIK
Published by: Debalina Datta
First published: October 10, 2020, 1:19 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर