corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমফান ঝড়ে বিধ্বস্ত সুন্দরবন, বৃক্ষরোপণের সঙ্গে গ্রামবাসীদের সাহায্য বন দফতরের

আমফান ঝড়ে বিধ্বস্ত সুন্দরবন, বৃক্ষরোপণের সঙ্গে গ্রামবাসীদের সাহায্য বন দফতরের
সুন্দরবনে বৃক্ষরোপণ করছেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়৷

শুধু গাছ পোঁতাই নয়, গ্রামবাসীদের মধ্যে এ দিন মাছের চারাও বিতরণ করেন বনমন্ত্রী।

  • Share this:

#সুন্দরবন: রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সুন্দরবনে গিয়ে ম্যানগ্রোভ গাছ পুঁতলেন এবং সেখানকার গ্রামবাসীদের বিভিন্ন ধরনের সাহায্যও করলেন।

আমফান ঝড়ের পরে সুন্দরবন এলাকায় ১০ কোটি গাছ পোঁতার কথা ঘোষণা করেছিল রাজ্য বন দফতর। সোমবার সুন্দরবনের কুমীরমারি এলাকায় গিয়ে গ্রামবাসীদের সঙ্গে একসঙ্গে ম্যানগ্রোভ গাছ পোঁতেন রাজীব। তার পরে তিনি বলেন, 'আমরা আমফান ঝড়ের পরে ১০ কোটি গাছ লাগানোর কথা ঘোষণা করেছিলাম। ইতিমধ্যেই আমরা আড়াই কোটি গাছ লাগিয়ে ফেলেছি।'

শুধু গাছ পোঁতাই নয়, গ্রামবাসীদের মধ্যে এ দিন মাছের চারাও বিতরণ করেন মন্ত্রী। গ্রামবাসীদের মাছের চারা বিতরণ করে সেগুলি স্থানীয় পুকুরে চাষ করতে বলেন মন্ত্রী। বন দফতরের এক কর্তার কথায়, 'সুন্দরবনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মৎস্যজীবীরা অনেক দূরে নদীতে বা সমুদ্রে মাছ ধরতে যান। তাতে অনেকেরই পথে বাঘের হামলায় মৃত্যু পর্যন্ত হয়। ওই প্রবণতা ঠেকাতেই পুকুরে মাছ চাষের চারা দেওয়া হয়েছে।'

শুধু মাছ ধরতে গিয়েই নয়, জঙ্গল থেকে কাঠ বয়ে আনতে গিয়েও অনেকে সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে প্রাণ হারান। ইতিমধ্যেই এই প্রবণতা ঠেকাতে সুন্দরবনের মানুষকে গ্যাসে রান্না করায় উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে। এ দিনও ৫০০ মৎস্যজীবীকে গ্যাসের নতুন সংযোগ দেওয়া হয়েছে।

এ দিন এ সবের পাশাপাশি ১০০০ স্কুল পড়ুয়াকে স্কুলব্যাগ, খাতা, পেন্সিল, পেন, নোটবুক দেওয়া হয়েছে। 'শের' নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সাহায্যে স্কুলপড়ুয়াদের জিনিসপত্র এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার ও তার সংযোগ দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে আরও মৎস্যজীবীকে এই সাহায্য করা হবে বলে জানান বন দফতরের কর্তারা।

Shalini Datta

Published by: Debamoy Ghosh
First published: September 15, 2020, 12:24 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर