সফরের আগে মুখ্যমন্ত্রীর ফ্লেক্স ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে সরগরম কালনা

সফরের আগে মুখ্যমন্ত্রীর ফ্লেক্স ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে সরগরম কালনা
রাতের অন্ধকারে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ফ্লেক্স ছিঁড়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

রাতের অন্ধকারে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ফ্লেক্স ছিঁড়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

  • Share this:

#বর্ধমান: সফরের ঠিক আগে ছেঁড়া হল তৃণমূল নেত্রীর পোস্টার! এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে পূর্ব বর্ধমানের কালনা শহরে। রাতের অন্ধকারে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ফ্লেক্স ছিঁড়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি। তাদের বক্তব্য, তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এর সঙ্গে বিজেপির কোনও সম্পর্ক নেই। ঘটনাকে কেন্দ্র করে সরগরম কালনা শহর।

আগামীকাল মঙ্গলবার কালনার বৈদ্যপুর স্কুল মাঠে নির্বাচনী জনসভা করবেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিধানসভা নির্বাচনের ভালো ফল করতে পূর্ব বর্ধমান জেলাকে পাখির চোখ করেছে বিজেপি। বারে বারেই কালনা মহকুমা জুড়ে নির্বাচনী জনসভা করছে তারা। সে কারণেই রাজ্যের শস্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনাকে প্রথম পর্বের নির্বাচনী জনসভার জন্য বেছে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী- এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। সেই জনসভার মঞ্চ থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তোপ দাগবেন বলে মনে করছেন এলাকার বাসিন্দারা।

মুখ্যমন্ত্রীর সেই জনসভার প্রচারে কালনা শহরজুড়ে ব্যানার পোস্টার ফ্লেক্স লাগিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তেমনই ফ্লেক্স লাগানো হয়েছিল কালনার লালবাগান এলাকায়। আজ সকালের সেই ফ্লেক্স ছেঁড়া অবস্থায় দেখতে পান এলাকার বাসিন্দারা। সেই ফ্লেক্স ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে জোর রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়েছে কালনা শহরে।


তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা কালনার পুরপ্রধান দেবপ্রসাদ বাগ বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডুর বাড়ির সামনে ওই ফ্লেক্স লাগানো হয়েছিল। চোখের সামনে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রীর ছবি পছন্দ না হওয়ায় ওই বিধায়ক রাতের অন্ধকারে তা ছিঁড়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন পুরপ্রধান দেবপ্রসাদ বাগ। যদিও এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে চাননি বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু।

দেবপ্রসাদ বাগ বলেন, বিজেপির এই সংস্কৃতি কালনার বাসিন্দারা দেখছেন। তাঁরাই এর বিচার করবেন। ফ্লেক্স ছিঁড়ে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রোখা যাবে না। যদিও তাদের দিকে ওঠা অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। স্থানীয় বিজেপি নেতা সুকল্যাণ পাল বলেন, এর আগেও তৃণমূল কংগ্রেস সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ব্যানার পোস্টার ফ্লেক্স লাগিয়েছে। কোনও দিন ফ্লেক্স ছেঁড়ার মতো ঘটনা ঘটেনি। বিজেপির রুচি বা সংস্কৃতি এই ধরনের ঘটনার পরিপন্থী। এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কথা কালনার প্রতিটি মানুষ জানেন। ফ্লেক্স ছেঁড়া হয়ে থাকলে তা তাদের গোষ্ঠী কোন্দলের জন্যই হয়েছে। এর সঙ্গে বিজেপির কর্মীদের কোনও সম্পর্ক নেই।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: