• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • প্রথম বার!‌ বিরহড় জনজাতির তিন যুবক রক্তদান করলেন হাসপাতালে

প্রথম বার!‌ বিরহড় জনজাতির তিন যুবক রক্তদান করলেন হাসপাতালে

মনোজিৎ এর এক ফুটের দুর্গা প্রতিমাই এখন নজর কাড়ছে পাড়া প্রতিবেশীদের। করোনা আবহের মধ্যেই পালিত হবে এই বছর বাংলার সব চেয়ে বড় উৎসব। আর এই উৎসবে একটু ভুল ডেকে আনতে পারে বড় বিপদ। এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।Photo- Video Grab

মনোজিৎ এর এক ফুটের দুর্গা প্রতিমাই এখন নজর কাড়ছে পাড়া প্রতিবেশীদের। করোনা আবহের মধ্যেই পালিত হবে এই বছর বাংলার সব চেয়ে বড় উৎসব। আর এই উৎসবে একটু ভুল ডেকে আনতে পারে বড় বিপদ। এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।Photo- Video Grab

রক্তদান করলেন বিরহড় জনজাতির তিন যুবক কাঞ্চন শিকারী, মঞ্জুর শিকারী ও সীতারাম শিকারী

  • Share this:

    #পুরুলিয়াঃ পুরুলিয়া সদর হাসপাতালে এইদিন প্রথম রক্তদান করলেন বিরহড় জনজাতির তিন যুবক কাঞ্চন শিকারী, মঞ্জুর শিকারী ও সীতারাম শিকারী। কিছুদিন আগে বিরহড় শিশু বিষ্ণু শিকারী(৮) এনকেফেলাইটিসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। এরপর বিরহড় গ্রাম বেড়সার শিবচরণ শিকারী(১০) আবার এনকেফেলাইটিসে আক্রান্ত হয়। এইদিন শিবচরণ শিকারীর সুস্থ হওয়ার উপলক্ষ্যে ডাক্তার, নার্স এবং সকল চিকিৎসাকর্মীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের জন্যে সদর হাসপাতালে একটি ইনহাউস রক্তদানের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

    বিরহড় ছাড়াও এইদিন রক্তদান করেন কলকাতার টিম মৈত্রেয়র সপ্তর্ষি, অঙ্কিতা, অলোক, দীপ, সাগ্নিক। সাথে ছিলো পুরুলিয়া ফাউন্ডেশন ও প্রতিজ্ঞা ফাউন্ডেশন। টিম মৈত্রেয়র তরফে সপ্তর্ষি ও অঙ্কিতা এবং শিবচরণের বাবা মঞ্জুর শিকারী দেখা করেন পুরুলিয়া জেলা শাসক রাহুল মজুমদারের সাথে। পুরুলিয়ার এই প্রান্তিক গ্রামগুলিতে এনকেফেলাইটিস ও অন্যান্য জীবাণুবাহী রোগের প্রকোপ থাকলেও নির্ধারিত টীকাকরণ যথাযথ ভাবে হয়নি। প্রসঙ্গত এই দুই বিরহড় শিশুই বাঘমুন্ডি ভূপতিপল্লী জুনিয়স স্কুলের ছাত্র এবং ব্লকের পাথরডি স্বাস্থ্যকেন্দ্রের টীকাকরণ কর্মসূচির অন্তর্গত।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: