পার্টি অফিসে বসে ছিলেন তৃণমূল কর্মীরা, আচমকা ছুটে এল গুলি!

আচমকাই রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসের সামনে একটি বাইক এসে দাঁড়ায়। বাইক আরোহীর মুখে কালো কাপড় বাঁধা ছিল।

আচমকাই রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসের সামনে একটি বাইক এসে দাঁড়ায়। বাইক আরোহীর মুখে কালো কাপড় বাঁধা ছিল।

  • Share this:

    #এক্তারপুর: দুষ্কৃতিদের ছোঁড়া গুলিতে গুরুতর জখম হলেন তৃণমূল কর্মী! মঙ্গলবার পার্টি অফিসে বসে ছিলেন বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী। সেই সময় বাইকে সওয়ার দুষ্কৃতিরা গুলি ছোঁড়ে বলে অভিযোগ। ভূপতিনগরের এক্তারপুরের ঘটনা। আহত তৃণমুল কর্মী দারকেশ দাস গুরুতর আহত। তাঁকে মুগবেড়িয়া হাসপাতাল থেকে তমলুক নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ভোট পরবর্তী হিংসা বেড়েই চলেছে রাজ্যে। বিধানসভা নির্বাচন মিটে যাওয়ার পরও রাজ্যে যেন হিংসার ঘটনা থামছে না। প্রায়দিনই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনার খবর শোনা যাচ্ছে। এবারও তেমনই হল। অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতিদের গুলিতে গুরুতর আহত হলেন তৃণমূল কর্মীরা।

    পুলিশ সুত্রের খবর, দলীয় অফিসে বসেছিলেন তৃণমুলের নেতা কর্মীরা। আচমকাই রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসের সামনে একটি বাইক এসে দাঁড়ায়। বাইক আরোহীর মুখে কালো কাপড় বাঁধা ছিল। ফলে বাইকে থাকা দুষ্কৃতিদের চিনে ফেলার কোনও উপায় ছিল না। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই দুষ্কৃতিরা গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। তার পর অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। দুষ্কৃতিদের ছোঁড়া গুলিতেই গুরুতর জখম হন এক তৃণমূল কর্মী। ওই তৃণমূল কর্মী গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর তাঁকে তড়িঘড়ি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে আঘাত গুরুতর হওয়ায় তাঁকে তমলুকের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এদিন দুষ্কৃতিদের হামলা থেকে অল্পের জন্যে বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী বেঁচে গিয়েছেন।

    Published by:Suman Majumder
    First published: