সায়নী-প্রসঙ্গে অশালীন মন্তব্যের জের, এবার থানায় অভিযোগ দায়ের সৌমিত্র খাঁ-এর বিরুদ্ধে

সায়নী-প্রসঙ্গে অশালীন মন্তব্যের জের, এবার থানায় অভিযোগ দায়ের সৌমিত্র খাঁ-এর বিরুদ্ধে
খণ্ডকোষের সভায় সৌমিত্র খাঁ। ফাইল চিত্র।

খন্ডঘোষের একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সায়নী ঘোষ সহ চলচ্চিত্রশিল্পীদের একাংশের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ।

  • Share this:

    #বর্ধমান: এবার সাংসদ তথা বিজেপির যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে পূর্ব বর্ধমান জেলার খণ্ডঘোষ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হল। লিখিত অভিযোগ করলেন এক মহিলা। খন্ডঘোষের একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সায়নী ঘোষ সহ চলচ্চিত্রশিল্পীদের একাংশের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ।

    গত ২৭ শে জানুয়ারী খণ্ডঘোষের বেড়ুগ্রামে বিজেপির একটি সভায় যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। বেড়ুগ্রামের বাসিন্দা মাম্পি বন্দ্যোপাধ্যায় খণ্ডঘোষ থানায় সৌমিত্রবাবুর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছেন তাতে তিনি জানিয়েছেন, ওইদিন বিকাল চারটেয় বেডুগ্রামের দীঘিরপাড় এলাকায় বিজেপির সভা থেকে রীতিমত অশালীন ভাষায় সৌমিত্র খাঁ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন। এমনকি মহিলাদের সম্পর্কেও তিনি কুরুচিকর মন্তব্য করেন। এতে মহিলাদের যথেষ্টই সম্মানহানি হয়েছে। একইসঙ্গে তিনি নিজেও এই ঘটনায় অপমানিতবোধ করেছেন।

    শুধু তাই নয়, সৌমিত্র খাঁ ওই সভা থেকেই হিন্দু দেবদেবীদের সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করে এলাকায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে নষ্ট হয় এমন উস্কানিও দিয়েছেন। এই ঘটনায় এলাকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হবার পরিবেশ তৈরি হয়েছে। তাই এই ঘটনায় সৌমিত্রবাবুর বিরুদ্ধে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেবার আবেদন করেছেন তিনি। উল্লেখ্য, ওই সভা থেকেই সায়নী ঘোষ সহ চলচ্চিত্র শিল্পীদের একাংশের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন আক্রমণ করেছিলেন বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। তিনি চলচ্চিত্র শিল্পীদের একাংশকে যৌনকর্মী, যৌন পেশার সঙ্গে যুক্ত বলে মন্তব্য করেছিলেন। রাতের অন্ধকারে তাঁরা খারাপ কাজ করেন বলেও মন্তব্য করেছিলেন তিনি।


    পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এই অভিযোগের ভিত্তিতে সৌমিত্রবাবুর বিরুদ্ধে ৫০৪,৫০৫ এর ১এর (বি) এবং ৫০৯ ধারা মতে কেস রুজু করে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতর। তৃণমূলের অভিযোগ, বিজেপি মহিলাদের সম্মান করতে জানে না।বিজেপি একটা বিকারগ্রস্ত দলে পরিনত হয়েছে।বিজেপির পাল্টা অভিযোগ ঘটনার জেরে সৌমিত্র খাঁ ইতিমধ্যেই সোশাল মিডিয়ায় ক্ষমা চেয়েছেন। তৃণমূলের নেতারা তো তাও করেন না।নারীদের ধর্ষন করলেও এ রাজ্যে সাজা হয় না।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর