বাড়ির অমতে বিয়ে করেছে মেয়ে, শ্বশুর বাড়িতে চড়াও হয়ে আগ্নেয়াস্ত্র উঁচিয়ে খুনের হুমকি বাবার!

  • Share this:

#বর্ধমান: ভালবেসে বিয়ে করেছিল মেয়ে। বাড়ির অমতে এই বিয়ে মেনে নিতে পারেননি বাবা। তাই লোকজন নিয়ে মেয়ের বাড়িতে চড়াও হলেন তিনি। শুধু তাই নয়,বাড়ি ভাঙচুর করার পর তাতে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টাও হয়। এমনকি আগ্নেয়াস্ত্র উঁচিয়ে খুন করার ভয় দেখানো হয় মেয়েকে! পূর্ব বর্ধমানের রায়না থানায় বাবার বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ করলেন এক মহিলা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার রায়না বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বাসিন্দা সৈকত দাস এর সঙ্গে ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল  রানী আঢ্যের। তাঁর বাপের বাড়ি রায়না বাজার এলাকায়। অভিযোগ এই ভালোবাসার সম্পর্ক  কোনওদিনই মেনে নিতে পারেননি তার বাবা। বিয়ের আগে ভালোবাসার সম্পর্কের কথা জানতে পেরে মেয়ের ওপর তিনি শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনও চালিয়েছেন বলে অভিযোগ।

গত  ১০ মার্চ বাড়ির অমতেই সৈকতের সঙ্গে রানীর বিয়ে হয়। ইতিমধ্যে রেজিস্ট্রিও হয়ে গিয়েছে।  বিয়ের পর সেই অত্যাচার আরও বেড়েছে বলে অভিযোগ রানীর। তাঁর অভিযোগ, গতকাল আমার বাবা লোকজন নিয়ে এসে আমার শ্বশুরবাড়িতে চড়াও হয়। বাড়িঘর ভাঙচুর করে। উত্তেজিত কথা বলার পাশাপাশি ঘরে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার চেষ্টাও চালায় তারা। এমনকি আগ্নেয়াস্ত্র বার করে তিনি খুন করার হুঁশিয়ারিও দেন। ওই মহিলা রায়না থানায় বাবার বিরুদ্ধে এমনই লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন। তাঁর অভিযোগ, বেআইনিভাবে  লাইসেন্স বিহীন সেই আগ্নেয়াস্ত্র রেখেছেন তাঁর বাবা।

রানীর বক্তব্য, আমি প্রাপ্তবয়স্ক। নিজের ইচ্ছায় ভালোবেসে বিয়ে করেছি। তারপরেও আমার উপর এই নির্যাতন চালানো হচ্ছে। তিনি জানান, আমি শান্তিতে সংসার করতে চাই। এই ধরনের নির্যাতন যাতে বন্ধ হয় তা নিশ্চিত করতে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছি। জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করেছে রায়না থানার পুলিশ।

Saradindu Ghosh

Published by:Elina Datta
First published: