Home /News /south-bengal /
নৃশংস! জমিতে ছাগল ঢোকার অপরাধে বাবা ও ছেলেকে কুপিয়ে খুন মুর্শিদাবাদে

নৃশংস! জমিতে ছাগল ঢোকার অপরাধে বাবা ও ছেলেকে কুপিয়ে খুন মুর্শিদাবাদে

নৃশংস! ছাগল জমিতে ঢুকেছে, এই অভিযোগে ছাগলের মালিক ও তাঁর ছেলেকে প্রকাশ্যে কোপাল জমির মালিক। ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদ জলঙ্গী থানার চোয়াপাড়া এলাকায়

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ:  নৃশংস! ছাগল জমিতে ঢুকেছে, এই অভিযোগে ছাগলের মালিক ও তাঁর ছেলেকে প্রকাশ্যে কোপাল জমির মালিক। ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদ জলঙ্গী থানার চোয়াপাড়া এলাকায়। তড়িঘড়ি সাঁদিখানদিয়ার গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা বিবেকানন্দ হালদারকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মৃতের ছেলে জীবনানন্দ হালদারকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে পাঠালে সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনায় অভিযুক্ত শীতল হালদার, রঞ্জিত হালদার ও সরস্বতী হালদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, সোমবার বিকেলে জীবনানন্দ হালদারের একটি ছাগল শীতল হালদারের জমিতে ঢুকে যায়। এরপরেই বিবেকানন্দ হালদারের বাড়িতে ধারাল অস্ত্র নিয়ে তেড়ে আসে শীতল হালদার-সহ আরও ৩জন। প্রকাশ্যে বাবা জীবনানন্দ হালদার ও ছেলে বিবেকানন্দ হালদারকে কুপিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। চিৎকার শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের বাসিন্দারা।

আরও পড়ুন: মাতঙ্গিনী হাজরার মূর্তিতে মাল্যদান, ভারতছাড়ো আন্দোলনের শহিদদের শ্রদ্ধার্ঘ্য তমলুকে

পুলিশ মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারজুড়ে। প্রতিবেশী সাহেব হালদার বলেন, '' জমিতে ছাগল ঢুকে পড়ার জন্য শীতল হালদার সহ আরও ৩জন ধারালো অস্ত্র নিয়ে জীবনানন্দ হালদারের বাড়ি চড়াও হয়। এরপরেই বাবা ছেলে দুজনকেই কোপাতে থাকে। তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও প্রাণে বাঁচানো গেল না। তবে পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে। আমরা চাই দোষীরা শাস্তি পাক।''

আরও পড়ুন: সাবধান! নামি কোম্পানির নামে বাজারে  বিক্রি হচ্ছিল নকল ওয়াটার ফিল্টার, চাঞ্চল্য বর্ধমানে

স্বামী ও ছেলেকে হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন ছায়া হালদার। তিনি বলেন, '' আমি বুঝতেই পারিনি ওরা বাড়িতে এসে আমার স্বামী ও ছেলেকে এইভাবে মেরে ফেলবে। আমার আর কেউ থাকল না। ''

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: Murshidabad

পরবর্তী খবর