• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • ঘোড়া নষ্ট করছে ফসল! মালিকের খোঁজ নেই, অভিযোগও করতে পারছেন না কৃষকরা

ঘোড়া নষ্ট করছে ফসল! মালিকের খোঁজ নেই, অভিযোগও করতে পারছেন না কৃষকরা

কৃষকরা দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য থেকে প্রধানের কাছে।

কৃষকরা দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য থেকে প্রধানের কাছে।

কৃষকরা দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য থেকে প্রধানের কাছে।

  • Share this:

#বীরভূম: মালিক বিহীন ঘোড়ার তান্ডবে অতিষ্ট কৃষকরা। বীরভূমের দুবরাজপুর থানার বালিজুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত মেজে , বেলসাড়া , বনকাটি ও কূলেকুরি সহ বেশ কয়েকটিব গ্রামে মালিকানাহীন ছয়টি ঘোড়া বিগত কয়েকমাস ধরে চাষের জমিতে তান্ডব চালাচ্ছে। মাঠের পর মাঠ লাগানো ধান ও শীতকালীন সবজি খেয়ে নিচ্ছে এবং যাতায়াতের পথে পায়ে মাড়িয়ে নষ্ট করে দিচ্ছে। এই ঘটনা কৃষকদের যথেষ্ট চিন্তার মধ্যে ফেলেছে। মূলত রাতের অন্ধকারেই আসছে ঘোড়ার দল। ফসলের মুখ দেখার আগেই মাঠের সবজি মাঠেই শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা । এমতাবস্থায় চাষিদের মাথায় হাত।

কৃষকরা দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য থেকে প্রধানের কাছে। প্রধান জানিয়েছেন, বিষয়টি সম্বন্ধে তিনি অবগত আছেন। পুরো বিষয়টি ব্লক আধিকারিককে জানাবেন এবং কৃষকদের এই সমস্যার সমাধানের চেষ্টা করবেন। অন্যদিকে কৃষকরা  লিখিত ভাবে থানাতেও জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্থানীয় কৃষক অসীম মন্ডল ও প্রহ্লাদ মন্ডল জানিয়েছেন এই অত্যাচার শুরু হয়েছে গত আট থেকে নয় মাস আগে থেকে। কোথায় থেকে এই ঘোড়াগুলো আসছে?   কোন গ্রাম থেকে আসছে ?  বা কে এই ঘোড়া গুলির মালিক তার সম্বন্ধে তারা পুরো অন্ধকারে। চাষিরা ঠিক করেছে এবার থেকে রাত জেগে ফসল পাহারা দেবে যাতে মাঠের ফসলে এসে ঘোড়াগুলি উপদ্রব না চালাতে পারে। মাঠের মধ্যে থাকা বেগুন,  মুলো,  বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি প্রচুর পরিমাণে নষ্ট হচ্ছে এই ঘোড়াগুলির জন্য। কখনও কখনও সকালের দিকেও দেখা যাচ্ছে এই ঘোড়াগুলিকে তবে গ্রামবাসীরা লক্ষ্য করে দেখেছেন গ্রামের ছোট্ট জঙ্গল পেরিয়ে ঘোড়াগুলি বর্ধমানের জঙ্গলের দিকে চলে যায়।

তবে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান মুনমুন ঘোষ জানিয়েছেন তিনি ব্যাপারটি বনদফতর কী আগেই জানিয়েছেন তবে বনদফতরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ফসল লেখা তাদের কাজ নয়। আগামী দিনে গোটা ঘটনাটি স্থানীয় বিডিওকে জানিয়ে ফসল গুলি রক্ষা করার ব্যাপারে সচেষ্ট হবেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান। অন্যদিকে দুবরাজপুর ব্লকের বিডিও অনিরুদ্ধ রায় জানিয়েছেন যদিও ৪জন কাছে কৃষকরা জানায়নি তবে ব্যাপারটি তিনি খোজখবর নিয়ে দেখে ঘোড়ার মালিকদের খোঁজখবর করে তাদেরকে অনুরোধ করবেন,  নইলে ঘোড়াগুলিকে আটকে রাখার ব্যবস্থা করা হবে৷

Published by:Pooja Basu
First published: