উলাটপুরাণ! প্রার্থী হওয়ার ইঁদুরদৌড় থেকে সরে যোগ্যকে জায়গা দিলেন এই তৃণমূল নেতা

উলাটপুরাণ! প্রার্থী হওয়ার ইঁদুরদৌড় থেকে সরে যোগ্যকে জায়গা দিলেন এই তৃণমূল নেতা

মনোনয়ন জমা দিতে যাচ্ছেন শংকর কুমার নস্কর।

টিকিট নিয়ে ক্ষোভের বাজারে বুঝিয়ে দিলেন তিনি ব্যতিক্রম।

  • Share this:

    #কলকাতা: দলের প্রার্থীর টিকিট না পেয়ে দলবদল রাজ্য জুড়ে। এমনকি প্রার্থী নিয়েও সমস্যার শেষ নেই। বিজেপির হেস্টিংস কার্যালয়ে রীতিমতো বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন বিজেপি কর্মীরাই। এই পরিস্থিতিতেই এবার নজির গড়লেন ফলতা বিধানসভার যুব তৃণমূল সভাপতি জাহাঙ্গীর খান। নিজে প্রার্থী না হয়ে দলের পঞ্চায়েত সদস্য শঙ্কর কুমার বিধায়ক পদে প্রার্থী করেন তিনি। তাঁর নাম আলোচনায় থাকলেও তিনি নিজেই এগিয়ে দেন শঙ্কর নস্করকে। আজ নিজেই প্রার্থী শঙ্কর কুমার নস্করকে ও ফলতার তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের নিয়ে ডায়মন্ড হারবারে মনোনয়ন পত্র জমার কাজটাও সারলেন তিনি। টিকিট নিয়ে ক্ষোভের বাজারে বুঝিয়ে দিলেন তিনি ব্যতিক্রম।

    ফলতা বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী শংকর কুমার নস্কর আজ ডায়মন্ডহারবার মহকুমা শাসকের হাতে তার মনোনয়ন পত্র জমা দেন। তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে  ফলতা বিধানসভা যুব সভাপতি জাহাঙ্গীর খানের নেতৃত্বে একটি মিছিল ডায়মন্ডহারবার এসডিও গ্রাউন্ড থেকে মহকুমা শাসকের দফতরে যায়। সেখানে মনোনয়ন পত্র জমা দেন শংকরবাবু।

    মূলত তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত ফলতা বিধানসভা। আর যেখান থেকে সবথেকে বেশি ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জয়ের আশ্বাস দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী শংকর কুমার নস্কর।

    ফলতা বিধানসভায় ২০১১, ২০১৬ দুটি ভোটেই জিতেছিলেন তমোনাশ ঘোষ। লোকসভা ভোটেও এই অঞ্চলে তৃণমূল চল্লিশ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে ছিল এই কেন্দ্রে। গোটা দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাতেই ভালো ফল করতে মরিয়া তৃণমূল ফলতাকে তাদের আত্মবিশ্বাসের কেন্দ্র হিসেবেই দেখছে। এর মধ্যে এই ঘটনা দলের নীচুতলার কর্মীদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের সঞ্চার করবে বলেই  মনে করছে নেতাকর্মীরা।

    -Arpan Mandal

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর