corona virus btn
corona virus btn
Loading

'কালোবাজার থেকে মদ কিনবেন না, তা বিষ মদও হতে পারে', সাবধান করল আবগারি দফতর

'কালোবাজার থেকে মদ কিনবেন না, তা বিষ মদও হতে পারে', সাবধান করল আবগারি দফতর

লকডাউনে কালোবাজারে যে মদ মিলছে তা বিষ মদও হতে পারে!

  • Share this:

#বর্ধমান: লক ডাউনে মদের দোকান বন্ধ, তাই কালোবাজার থেকে মদ কিনবেন না। তা বিষ মদও হতে পারে, রয়েছে প্রাণহানির আশঙ্কাও।  বর্ধমানে এমনই প্রচার শুরু করেছে প্রশাসন তথা আবগারি দফতর। গাড়িতে মাইক বেঁধে রাস্তার  মোড়ে মোড়ে দাঁড়িয়ে, কখনও বা শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে এভাবেই বাসিন্দাদের সচেতন করা হচ্ছে।

লক ডাউনের নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ছাড়া  অন্যান্য দোকানের সঙ্গে মদের দোকানও বন্ধ। অভিযোগ, সেই সুযোগেই বর্ধমানে চলছে মদের কালোবাজারি। ৫০০ টাকার মদ কালোবাজারে ১৫০০-১৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু সেই মদ কি সত্যিই আসল ? এই সুযোগে নকল মদ গোপনে বিক্রি হচ্ছে না তো? উঠছে সেই প্রশ্নও। এই সুযোগে বিষমদও বাজারে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছে আবগারি দফতর। বাড়তে পারে চোলাইয়ের রমরমা। তাই চোলাই তৈরি হয় যেসব এলাকায় সেখানে বারে বারে অভিযান চলছে। কয়েক জায়গায় চোলাই মদের ঠেক ভাঙাও হয়েছে। সেই সঙ্গে কালোবাজারে জাল মদ বিক্রিরও আশঙ্কা করছে আবগারি দফতর। বিষ মদ পান করলে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে জানিয়ে সাবধান করে দেওয়া হচ্ছে।

লকডাউন শুরুর কয়েক দিন পরও বেশ কিছু দোকান থেকে লুকিয়ে মদ বিক্রি করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ পায় আবগারি দফতর। পুলিশ ও আবগারি দফতর নজরদারি বাড়ানোয় তা বন্ধ হয়ে যায়।  কয়েকদিন আগে মন্তেশ্বরে বেআইনিভাবে মদ বিক্রির সময় পুলিশের হাতে ধরা পড়ে এক ব্যবসায়ী। তার কাছ থেকে প্রচুর পরিমাণ মদ বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। কিন্তু তাতেও মদের কালোবাজারি আটকানো যাচ্ছে না। ফোনের মাধ্যমে অর্ডার যাচ্ছে। হাত বদল হচ্ছে গোপনে। তবে দাম দ্বিগুণ বা আরও  বেশি। দিন যত এগোচ্ছে ততই কালোবাজারে বাড়ছে মদের দাম।  আর এখানেই আশংকার মেঘ দেখছেন আবগারি দফতরের আধিকারিকরা। তাঁরা বলছেন, বিদেশি মদের মতোই দেশি মদ বিক্রিও বন্ধ। সেই সুযোগে চোলাইয়ের চাহিদা বাড়বে। অনেকেই গোপনে চোলাই তৈরি করে তা চড়া দামে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ। অন্যদিকে বিদেশি মদের ব্যাপক কালোবাজারি চলছে বলেও খবর আসছে। তাই বিষ মদে মৃত্যু ঠেকানোর পাশাপাশি কালোবাজারি রুখতে ধারাবাহিক প্রচার ও সেই সঙ্গে অভিযান চলছে জোর কদমে।

Saradindu Ghosh

First published: April 6, 2020, 7:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर