ইজ্জত ঘরের কল্যাণেই চার হাত এক হল মুর্শিদাবাদে

আক্ষরিক অর্থেই নির্মল বিয়ের সাক্ষী মুর্শিদাবাদের বড়ঞার একঘরিয়া।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 31, 2018 07:30 PM IST
ইজ্জত ঘরের কল্যাণেই চার হাত এক হল মুর্শিদাবাদে
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 31, 2018 07:30 PM IST

 #মুর্শিদাবাদ: থাকতে হবে শৌচাগার। তা-হলেই চার হাত এক হবে। জেদ ধরেছিল মেয়েটা। সেই জেদের জয় হল। শৌচাগার করেই সামসালকে নিজের বাড়ি নিয়ে গেলেন তাউসেফ রেজা। আক্ষরিক অর্থেই নির্মল বিয়ের সাক্ষী মুর্শিদাবাদের বড়ঞার একঘরিয়া।

বাস্তবের টয়লেট এক প্রেমকথা। বিয়ের আগে থেকেই জেদ ধরেছিলেন সামসেল। শ্বশুরবাড়িতে আর কিছু থাকুক বা না-থাকুক, শৌচাগার থাকতে হবে। এটাই যেন পণ হিসেবে প্রস্তাব রেখেছিলেন পাত্র তাউসেফের কাছে। সম্মতি দিয়েছিলেন তাউসেফও। তাই বিয়ের আগে এই কার্ড ছাপিয়ে সবাইকে আমন্ত্রণ করেছিলেন। সেই কার্ডে জ্বলজ্বল করেছিল ইজ্জত ঘরের ছবি। বৃহস্পতিবার চার হাত এক হল সামসেল আর তাউসেফের। আক্ষরিক ভাবেই নির্মল হয়ে শুরু হল তাঁদের বিবাহিত জীবন।

গত এক বছর মুর্শিদাবাদকে নির্মল জেলা হিসেবে ঘোষণা করতে মরিয়া প্রশাসন। এরমধ্য সামসেলের এই জেদ যেন অন্য মাত্র দিল আধিকারিকদের। বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ছিল বড়ঞার যুগ্ম বিডিও সমরকান্তি শিকারি। তিনি স্বীকার করলেন, নির্মল জেলার প্রচারে তাঁদের কাজ আরও সহজ করলেন সামসেল।

বিয়ের বাসর থেকেই শুরু প্রচারের কাজ। আমন্ত্রিতদের হাতে লিফলেট বিলি করে মুর্শিদাবাদকে নির্মল জেলা করতে উদ্যোগ নিলেন জেলা আধিকারিকরা। সঙ্গে সামসেল এবং তাউসেফের জন্য রইল শুভেচ্ছা। অখ্যাত একঘরিয়ায় সম্পন্ন হল বাস্তবের টয়লেট এক প্রেমকথা।

First published: 07:30:01 PM Aug 31, 2018
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर