• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • West Bengal By Elections: উপনির্বাচনে এবার কমিশনের নজরে দিনহাটা, মোতায়েন সবথেকে বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী

West Bengal By Elections: উপনির্বাচনে এবার কমিশনের নজরে দিনহাটা, মোতায়েন সবথেকে বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাব মঙ্গলবার বাহিনী মোতায়েন নিয়ে বৈঠক করেন। চারটি কেন্দ্রের উপনির্বাচনের জন্য মোট ৮০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করছে কমিশন।

  • Share this:

#কলকাতা: আগামী ৩০ অক্টোবরের উপনির্বাচনে কমিশনের নজরে এবার কোচবিহারের দিনহাটাই (Dinhata)। কমিশন সূত্রে খবর, চারটি কেন্দ্রে উপ নির্বাচনের (West Bengal By Elections) জন্য সবথেকে বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী দিনহাটা কেন্দ্রেই মোতায়েন করা হচ্ছে।

সম্প্রতি দিনহাটাতে বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে বিক্ষোভ সহ সামগ্রিক পরিস্থিতি কে বিচার করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেই কমিশন (Election Commission) সূত্রে খবর। কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, দিনহাটাতে ২৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। পাশাপাশি শান্তিপুরে ১৯ কোম্পানি, খরদহতে ১৭ কোম্পানি, গোসাবাতে ২০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই চারটি কেন্দ্রের উপনির্বাচনের (West Bengal By Elections)  জন্য ১০০ শতাংশ বুথেই কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। সে ক্ষেত্রে যদি একটি ভোট গ্রহণ কেন্দ্রে যদি একটি বুথ থাকে তাহলে চারজন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান, একটি ভোট গ্রহণ কেন্দ্র দু'টি থেকে চারটি বুথ থাকলে আটজন কেন্দ্রীয় বাহিনী, পাঁচটি থেকে আটটি বুথ থাকলে ১৬ জন কেন্দ্রীয় বাহিনী, ন' টি বা তার বেশি বুথ একটি ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থাকলে ২৪ জন কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

আরও পড়ুন: নীল আবির মেখে ভোট প্রচার করলেন সিপিএম প্রার্থী, শান্তিপুরে জোর বিতর্ক

অন্যদিকে সোমবার নির্বাচনী প্রচার চলাকালীন দিনহাটায় বিজেপি প্রার্থীর উপরে বিক্ষোভের ঘটনাকে কেন্দ্র করে রিপোর্ট করা হয় কমিশনের তরফে। কমিশন সূত্রে খবর, সেই রিপোর্ট জেলার ইলেকশন অফিসার ভিডিও ফুটেজ সহ কমিশনকে পাঠিয়েছেন। ইতিমধ্যেই ওই এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফে। পাশাপাশি এলাকায় নতুন করে যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় নজরদারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসনকে।

অন্যদিকে মঙ্গলবার বিজেপি-র এক প্রতিনিধি দল মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরে আসে কয়েক দফা দাবি নিয়ে সিইও-র সঙ্গে বৈঠক করতে। বিজেপি তরফে দুই দফা দাবি পেশ করা হয় নির্বাচন কমিশনের কাছে। প্রথমত চারটি কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থীদের জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপত্তা চাওয়া হয়েছে। দ্বিতীয়ত প্রত্যেকটি কেন্দ্রের ৩০ কোম্পানি করে মোট ১২০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী আনার দাবি করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিজেপি নেতা শিশির বাজোরিয়া বলেন, "যে পরিমাণ কেন্দ্রীয় বাহিনী আনা হয়েছে তা দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন পরিচালনা করা সম্ভব নয়। তাই আমরা আরও বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী এনে ভোট করানোর দাবি রেখেছি নির্বাচন কমিশনের কাছে।"

কমিশন সূত্রে খবর, ন্যূনতম প্রত্যেকটি কেন্দ্রে ৫০ শতাংশ বুথে ওয়েব কাস্টিং হয় সেই বিষয়ে ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি নেওয়া শুরু হয়েছে। যদিও কত শতাংশ বুথে ওয়েব কাস্টিং এবং মাইক্রো অবজার্ভার থাকবে, আগামী সপ্তাহেই তা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ে যাবে বলেই কমিশন সূত্রে খবর।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Debamoy Ghosh
First published: