Anubrata Mondal: নিখোঁজ 'কেষ্ট'-র দেখা পেয়ে সাবধানী কমিশন, আরও একবার নজরদারির নোটিস

Anubrata Mondal: নিখোঁজ 'কেষ্ট'-র দেখা পেয়ে সাবধানী কমিশন, আরও একবার নজরদারির নোটিস

দ্বিতীয় বারের জন্য নোটিস পেলেন অনুব্রত মণ্ডল। ফাইল চিত্র

এই নোটিসে স্পষ্ট বলা হয়েছে, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নজরদারির মধ্যে থাকতে হবে তাঁকে। কোনও ভাবেই নজরদারির বাইরে যাওয়া যাবে না।

  • Share this:

#বোলপুর: ন‌জরবন্দি থাকা অবস্থাতেই তিন ঘণ্টার জন্য গায়েব হয়েছেন। খোঁজ মিলতেই আরও একবার নোটিস ধরানো হল অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mondal)। জেলা নির্বাচনী আধিকারিক বা জেলাশাসকের নির্দেশেই এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট অনুব্রতকে দ্বিতীয় বারে জন্য নোটিস দিয়েছে বলেই সূত্রের খবর। এই নোটিসে স্পষ্ট বলা হয়েছে, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নজরদারির মধ্যে থাকতে হবে তাঁকে। কোনও ভাবেই নজরদারির বাইরে যাওয়া যাবে না।

রাত পোহালেই ভোট বীরভূমে। তার আগে ২৭ এপ্রিল থেকে নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছিল অনুব্রত মণ্ডলকে। কমিশন নোটিস দিয়েই জানিয়েছিল আগামী ৩০ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত এই নজরদারি চলবে। কেন্দ্রীয় বাহিনী, একজিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটরা  নজর রাখছিলেন তাঁর উপর, পাশাপাশি ভিডিওগ্রাফিও চলছিল। কিন্তু সেসবের মধ্যেই অনুব্রত গায়েব হয়ে যান। তিন ঘণ্টা পরে খোঁজ মেলে তাঁর। এই তিনঘণ্টা তাঁর খোঁজ পেতে হন্যে হতে হয়েছে কমিশনকে। এর জেরেই  অনুব্রতর সঙ্গে যে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রয়েছে তিনি অনুব্রত মণ্ডলকে লিখিত নির্দেশ দিয়েছেন। অনুব্রত মণ্ডল তা গ্রহণও করেছেন বলে সূত্রের খবর।

ঠিক কোথায় গিয়েছিলেন অনুব্রত? সকাল ১১.৪০ মিনিটে বাড়ি থেকে বেরোনোর পরই কমিশনের র‌্যাডারের বাইরে চলে যান অনুব্রত। বোলপুর চৌরাস্তা থেকেই অনুব্রতর ট্র্যাক মিস করে কমিশনের দায়িত্বে থাকা ম্যাজিস্ট্রেট ও ৮ জন আধা সেনার গাড়ি। এরপর আড়াই ঘণ্টা অনুব্রতকে খুঁজেই চলল কমিশন। এরই মধ্যে অনুব্রত সাঁইথিয়ায় দলীয় অফিসে বৈঠক করেন। এরপর যান তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিতে। সেখানেই তাঁকে ফের 'খুঁজে' পায় কমিশনের দল।

আগামিকাল বীরভূমে নির্বাচন। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে কমিশন বীরভূমকে আলাদা গুরুত্ব দিচ্ছে।  এই পরিস্থিতিতে অনুব্রতর হঠাৎ পলায়ন কমিশন-প্রশাসনকে নতুন করে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলল।

Published by:Arka Deb
First published: