• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • ELECTION COMMISSION REPLIES MAMATA BANERJEES ALLEGATION ON BOYAL BOOTH IN NANDIGRAM SB

West Bengal Election 2021: বয়ালের বুথের ভোট নিয়ে মমতার অভিযোগ কি সত্যি? যা জানাল কমিশন...

মমতার অভিযোগের উত্তর কমিশনের

বিজেপির সেই অভিযোগ খারিজ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেদিন বুথে ভোট পরিচালনায় কোনও বাধা দেননি বলেই জানিয়েছিল কমিশন। কিন্তু এবার মমতার তোলা অভিযোগও খারিজ করে দিল নির্বাচন কমিশন।

  • Share this:

    #কলকাতা: নন্দীগ্রামের বয়ালের বুথের ভোট নিয়ে অভিযোগ ছিল তৃণমূল ও বিজেপির-দু'পক্ষেরই। বিজেপির অভিযোগের মূলে ছিল, ভোটের দিন বয়ালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান। বিজেপি অভিযোগ ছিল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল নির্বাচন কমিশনের উপর চাপ সৃষ্টি করছে, অবাধ নির্বাচন পরিচালনায় বাধা দিচ্ছে। কিন্তু বিজেপির সেই অভিযোগ খারিজ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেদিন বুথে ভোট পরিচালনায় কোনও বাধা দেননি বলেই জানিয়েছিল কমিশন। কিন্তু এবার মমতার তোলা অভিযোগও খারিজ করে দিল নির্বাচন কমিশন।

    কী অভিযোগ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? গত বৃহস্পতিবার বয়ালের ওই বুথে দুপুর দেড়টা নাগাদ গিয়ে প্রায় দু'ঘণ্টা ছিলেন মমতা। কেন্দ্রীয় বাহিনী ও পোলিং অফিসারদের বিরুদ্ধে ছাপ্পা ভোটে মদতের অভিযোগ তুলে তিনি চিঠি দিয়েছিলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈনকে। সেই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতেই এবার কড়া উত্তর দিয়ে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিল, এই অভিযোগ ভিত্তিহীন।

    মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে কমিশনের তরফে সাফ জানানো হয়েছে, 'আপনার চিঠিতে করা অভিযোগ তথ্যগতভাবে ভুল। আপনার অভিযোগের স্বপক্ষে কোনও সুনির্দিষ্ট প্রমাণও মেলেনি।' অর্থাৎ, বয়াল নিয়ে বিজেপির অভিযোগও যেমন খারিজ করেছে কমিশন, একই ভাবে মমতার অভিযোগকেও কোনও রকম গুরুত্বই দেওয়া হল না।

    প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রামের ভোটের দিন একদম সকাল থেকেই বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী বুথে বুথে ঘুরলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর রেয়াপাড়ার ভাড়া বাড়ি থেকেই ভোটের উপর নজর রাখছিলেন। নানা জায়গা থেকে বিক্ষিপ্ত অভিযোগ আসলেও, সবচেয়ে বেশি অভিযোগ আসে বয়ালের মোকতাব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৭ নম্বর বুথ থেকে। এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুপুর ১ টা ১৫ নাগাদ রেয়াপাড়ার বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা চলে যান সেই বুথে। রীতিমতো ধর্নার কায়দায় দুইঘণ্টা ওই বুথেই বসে থাকেন তিনি। সেখান থেকেই ফোন করেন রাজ্যপালকে। বুথে বসেই রাইটিং প্যাডে চিঠি লেখেন কমিশনের উদ্দেশে। এমনকী আদালতে যাওয়ার কথাও শোনা যায় তাঁর মুখে। বাইরে ততক্ষণে অবশ্য যুযুধান দুইপক্ষ রীতিমতো একে অন্যের বিরুদ্ধে ফুঁসছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিষ্কার অভিযোগ করেন, বহিরাগতরা এই বুথে ভোটদান প্রক্রিয়া ব্যাহত করেছে। সেই অনুযায়ী তাঁর অভিযোগ তিনি কমিশনকে পাঠানো চিঠিতেও লেখেন। কিন্তু তৃণমূল নেত্রীর অভিযোগ সাফ খারিজ করে দিল নির্বাচন কমিশন।

    Published by:Suman Biswas
    First published: