কড়া নির্দেশ কমিশনের, পুর-প্রশাসক পদ থেকে সরাতে হবে 'রাজনীতিকদের'

কড়া নির্দেশ কমিশনের, পুর-প্রশাসক পদ থেকে সরাতে হবে 'রাজনীতিকদের'

সোমবার সকাল ১০টার মধ্যে মুখ্যসচিবকে এই বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফ থেকে। সূত্রের খবর, ফিরহাদ হাকিম শনিবার প্রশাসক পদ ছেড়েছেন। বাকিরাও সকলেই পদত্যাগ করবেন।

সোমবার সকাল ১০টার মধ্যে মুখ্যসচিবকে এই বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফ থেকে। সূত্রের খবর, ফিরহাদ হাকিম শনিবার প্রশাসক পদ ছেড়েছেন। বাকিরাও সকলেই পদত্যাগ করবেন।

  • Share this:

    #কলকাতা : রাজ্যের বিরোধী দলগুলো দীর্ঘদিন ধরেই দাবি করে আসছিল। অবশেষে বিরোধীদের দাবিকে মান্যতা দিল কমিশন। নির্বাচনের আগে আবারও নতুন নির্দেশিকা জারি করা হল কমিশনের (Election Commission) তরফ থেকে। এই নির্দেশিকায় পরিস্কার বলা হয়েছে যে, পুর প্রশাসক মণ্ডলীতে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের রাখা যাবে না। এতে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হচ্ছে। অর্থাৎ, বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হলে বা কোনও ব্যক্তি রাজনীতিক হলে পুর প্রশাসকের দায়িত্ব আর পালন করতে পারবেন না। কলকাতা পুরসভার পাশাপাশি অন্যান্য পুরসভা থেকেও অবিলম্বে রাজনীতিকদের সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সোমবার সকাল ১০টার মধ্যে মুখ্যসচিবকে এই বিষয়ে বিস্তারিত রিপোর্ট পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফ থেকে।

    প্রসঙ্গত, গত বছরের এপ্রিল মাসে রাজ্যের পুরসভাগুলিতে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে নির্বাচন করানো সম্ভব হয়নি। কিন্তু পুরসভার পাঁচ বছর পূরণ হয়ে যাওয়ায় সবকটি পুরসভাতেই মেয়রদের বদলে প্রশাসক গঠন করা হয়। পুরপ্রধানদের প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়। কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকেও প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছিল। এর বিরোধিতায় রাজ্য বিজেপির নেতারা হাইকোর্টে মামলা করেছিল। কিন্তু বিজেপির তরফ থেকে দায়ের করা সেই মামলা খারিজ হয়ে গিয়েছিল। এবার নির্বাচনের কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী প্রশাসক মণ্ডলী থেকে সমস্ত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের সরানো হবে। আর তাঁদের জায়গায় দায়িত্বে বসানো হবে রাজ্য সরকারের আধিকারিকদের।

    উল্লেখ্য, পুরসভার প্রশাসক হওয়ার পাশাপাশি কলকাতা বন্দর বিধানসভা কেন্দ্র থেকেও ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। অতীন ঘোষও প্রশাসক বোর্ডের সদস্য হওয়ার পাশাপাশি ভোটে দাঁড়িয়েছেন। তাঁর ক্ষেত্রেও কার্যকর হবে একই নির্দেশ। অন্যান্য পুরসভার ক্ষেত্রেও বলা হয়েছে, কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তি প্রশাসকের পদে থাকতে পারবেন না। আপাতত তাঁদের প্রত্যেককে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। এর পাশাপাশি কলকাতা পুরসভার দেব্রবত মজুমদার, অতীন ঘোষ, দেবাশীষ কুমারও নির্বাচনে লড়ছেন। সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়কেও। সূত্রের খবর, ফিরহাদ হাকিম শনিবার প্রশাসক পদ ছেড়েছেন। বাকিরাও সকলেই পদত্যাগ করবেন।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর