বাউল গানে বর্ষবরণ বর্ধমানের দেবীপুরে

বাউল গানে বর্ষবরণ বর্ধমানের দেবীপুরে

শীতকে সঙ্গী করে বাউল গানের মাধ্যমে নতুন বছরকে বরণ করে নিচ্ছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির দেবীপুর

  • Share this:

 Saradindu Ghosh

 #পূর্ব বর্ধমান: 'খাঁচার ভিতর অচিন পাখি কেমনে আসে যায়।' একতারা হাতে চোখ বুজে মনের সব আকুতি ঢেলে গাইছেন শিল্পী। একমনে সেই গানের রস আস্বাদন করছেন শ্রোতারা। শীতকে সঙ্গী করে এভাবেই বাউল গানের মাধ্যমে নতুন বছরকে বরণ করে নিচ্ছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির দেবীপুর।

আলের ওপর সবুজ ঘাসে মুক্তোর মতো শিশিরবিন্দু। ধূধূ করছে মাঠ। ধান কাটার কাজ শেষ হয়েছে আগেই। এখন একটু জিরিয়ে নেওয়া। শীত পড়েছে জাঁকিয়ে। দূর থেকে বয়ে আসছে বাউল গানের সুর। কাজের কিছুটা অবসরের এই সময়েই গ্রাম বাংলায় নানান লোক উৎসবের ঘনঘটা । বছর শেষে বাউল গানে মেতেছে দেবীপুর। নিয়ম করে শুধু সান্ধ্য আসর নয়। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দেবীপুর ভাসছে বাউল গানে।

রবিবার দেবীপুরে শুরু হয়েছে সারা বাংলা বাউল ও লোকশিল্পী মিলন উৎসব। অনুষ্ঠানের মূল উদ্যোক্তা অমৃত বাউল লোকগান প্রসার সমিতি। দেবীপুর স্টেশন উত্তর বাজার সমিতির আয়োজনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বাউল শিল্পীরা এসেছেন। সে দলে রয়েছেন বর্ধমান, বীরভূম, পুরুলিয়া থেকে শুরু করে রাজ্যের প্রায় সব প্রান্তের বাউল ও লোকশিল্পীরা। অমৃত বাউল লোকগান প্রসার সমিতির রাজ্য সম্পাদক মনিমোহন দাস জানালেন, মোট ১৫০জন বাউল সহ লোকশিল্পী এই মিলন উৎসবে যোগ দিয়েছেন। ৩দিন ধরে গানের মাধ্যমে ভাবের আদান প্রদান চলবে।

উপস্থিত বাউল শিল্পীরা বললেন, ' শীত মানেই আমাদের ঘর ছাড়ার মরশুম। মেলা উৎসবেই মরশুম কেটে যায়। জয়দেব কেন্দুলি, পৌষমেলা, গঙ্গাসাগর মেলা পরপর চলে। তারই মাঝে এই মিলন উৎসবে যোগ দিতে বেশ ভালো লাগছে।' উৎসবের শুরুতে ছিল বাউল ও লোকশিল্পীদের নিয়ে পদযাত্রা। দেবীপুর মোড় থেকে জিটিরোড পর্যন্ত পদযাত্রা আয়োজিত হয় এলাকাবাসীর কাছে উৎসবের বার্তা পৌঁছে দিতে। এরপর শুরু হয় মূল মঞ্চের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠান চলছে টানা ৩দিন। উদ্যোক্তারা বললেন, ' বাউল সহ লোকগীতি বাঙালির সনাতন ঐতিহ্য। তাকে পুষ্ট করতেই এই উদ্যোগ। এভাবেই বাউল গানের সুরে পুরনো বছরকে বিদায় ও নতুন বছরের আবাহনে খুশি বাসিন্দারা।'

First published: December 31, 2019, 5:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर