• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • EAST BURDWAN POLICE TO DEVELOP ITS INFRASTRUCTURE AFTER CM MAMATA BANERJEES ORDER AG

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরেই কর্মীদের ভাল পরিকাঠামোয় রাখতে উদ্যোগী পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ

ইতিমধ্যেই বর্ধমান পুলিশ লাইন ও থানাগুলিতে পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে বলে পূর্ব বর্ধমানের জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন।

ইতিমধ্যেই বর্ধমান পুলিশ লাইন ও থানাগুলিতে পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে বলে পূর্ব বর্ধমানের জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন।

  • Share this:

মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ মেনে ব্যারাক ও থানাগুলিতে যাতে দূরত্ব বজায় রেখে পুলিশকর্মীরা বসবাস করতে পারেন তার ব্যবস্থা নেওয়া শুরু করল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। ইতিমধ্যেই বর্ধমান পুলিশ লাইন ও থানাগুলিতে পরিকাঠামো খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে বলে পূর্ব বর্ধমানের জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার ভার্চুয়াল প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, খণ্ডঘোষ থানায় একসঙ্গে অনেক জন পুলিশ কর্মী অফিসার করোনা আক্রান্ত হওয়ার প্রসঙ্গে ব্যারাকগুলিতে যাতে পুলিশ কর্মীরা দূরত্ব বজায় রেখে থাকতে পারেন সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দেন। ওই থানায় মঙ্গলবার রাতে ফের বারো জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এই নিয়ে খণ্ডঘোষ থানার ২৯ জন করোনা আক্রান্ত হলেন।

পূর্ব বর্ধমানের জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় বলেন, আগে বর্ধমান পুলিশ লাইনে অল্প জায়গার মধ্যে অনেককে থাকতে হতো। কিন্তু পরবর্তী সময়ে পরিকাঠামো তৈরি হওয়ায় তাদের অনেককেই তুলনামূলক ভাল জায়গায় থাকার ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়েছে। এছাড়াও পুলিশ লাইন ব্যারাকে যাঁরা রয়েছেন তাঁদের মধ্যে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে কিনা তা দেখে নেওয়া হচ্ছে। প্রয়োজনে তাঁরা যাতে দূরত্ব বজায় রেখে থাকতে পারেন সেই জন্য হাতে থাকা সব পরিকাঠামোয় ব্যবহার করা হবে। এর পাশাপাশি জেলার থানাগুলিতেও পুলিশ কর্মীরা কীভাবে থাকছেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোথাও একসঙ্গে অনেককে থাকতে হচ্ছে কিনা তার রিপোর্ট থানার অফিসারদের কাছ থেকে চাওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে তাদের আলাদা জায়গায় থাকার ব্যবস্থা করা হবে।

খণ্ডঘোষ থানা ভবন স্যানিটাইজ করার জন্য কিছুটা দূরের একটি অনুষ্ঠান বাড়ি ভাড়া করে সেখান থেকে অস্থায়ী ভাবে থানা চালানো হচ্ছে। জেলা পুলিশ সুপার বলেন, খণ্ডঘোষ থানার বিল্ডিং ইতিমধ্যেই কয়েক দফায় ভাল ভাবে স্যানেটাইজ করা হয়েছে। অনুষ্ঠান বাড়ি থেকে ফের আগের বিল্ডিং থেকেই থানার কাজ কর্ম পরিচালনা করা হবে। তবে ভাড়া নেওয়া ওই বাড়ি এখনই ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে না। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ মেনে পুলিশ কর্মীদের রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। জেলার কয়েক জন ওসি পদমর্যাদার পুলিশ অফিসারের সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছে, কিছু থানায় আলো বাতাসহীন ঘরে বিশ্রাম নিতে হয় পুলিশ কর্মীদের। তার থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। থানা লাগোয়া ওইসব ঘরগুলির পরিকাঠামো উন্নত করা গেলে অনেক সুস্থ থাকবেন পুলিশকর্মীরা।

SARADINDU GHOSH

Published by:Arindam Gupta
First published: