দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কোভিড প্রোটোকল মেনে খুলল রমনাবাগান অভয়ারণ্য, মিনি জ্যু-র দ্বারোদঘাটনে খুশি পশুপ্রেমীরা

কোভিড প্রোটোকল মেনে খুলল রমনাবাগান অভয়ারণ্য, মিনি জ্যু-র দ্বারোদঘাটনে খুশি পশুপ্রেমীরা

মাস্ক বা ফেস কভার ছাড়া কাউকেই এদিন অভয়ারণ্যে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এই নিয়ম আপাতত আগামী দিনগুলোতেও চালু থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

  • Share this:

#বর্ধমান: কোভিড প্রোটোকল মেনে শুক্রবার থেকে দর্শকদের জন্য খুলে গেল বর্ধমানের রমনাবাগান অভয়ারণ্য। পাঁচ মাস পর ফের এই মিনি জ্যু'তে আসতে পেরে খুশি পশুপ্রেমীরা। এদিন বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে অনেকেই রমনাবাগান অভয়ারণ্যে সময় কাটান। এই মিনি জুকে আরও আকর্ষণীয় করতে আরও বেশ কিছু বন্যপ্রাণী নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে বলে বন দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে।

অনলাইন টিকিটের মাধ্যমে দর্শকদের জন্য খুলে গেল রমনাবাগান অভয়ারণ্য। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতেই টিকিট কাউন্টারে টাকা দিয়ে টিকিট কেনার বদলে অনলাইন টিকিট বুকিং ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে বলে বন দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। কর্মীরা জানালেন, লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কাটার ক্ষেত্রে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। সেজন্যই অনলাইন টিকিটের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মাস্ক বা ফেস কভার ছাড়া কাউকেই এদিন অভয়ারণ্যে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এই নিয়ম আপাতত আগামী দিনগুলোতেও চালু থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সেইসঙ্গে প্রবেশপথের মুখেই থাকছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। সামাজিক দূরত্ব সব সময় যাতে বজায় থাকে তা নিশ্চিত করতে নজরদারি চালালেন কর্মীরা।স্বাস্থ্যবিধি সুনিশ্চিত করতে বাড়তি নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করা হয়েছে বলে বনদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে। নিরাপত্তারক্ষীরা এনক্লোজারের রেলিংয়ে কাউকে হাত দিতে দিচ্ছেন না সেই সঙ্গে যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে সে ব্যাপারেও তারা সদা সতর্ক রয়েছে।

দুটি চিতাবাঘ ছাড়াও ভালুক, কুমির সহ নানা প্রাণী রয়েছে এই মিনি জুতে। ময়ূর,শামুকখোল, কাকাতুয়া ছাড়াও প্রচুর পাখি রয়েছে এখানে। এই অভয়ারণ্যের অন্যতম আকর্ষণ এখানের হরিণ। প্রচুর সংখ্যায় হরিণ রয়েছে এখানে।দলবদ্ধভাবে তাদের খাদ্য গ্রহণ, ঘোরাফেরা দেখতে দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ লক্ষ্য করা গিয়েছে। তবে খারাপ আবহাওয়া কারণে এদিন ভিড় ছিল তুলনামূলক কম। বনদপ্তরের কর্মীরা বললেন, করোনা পরিস্থিতিতে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। বাস চলাচলও অনিয়মিত। তার ওপর মুষলধারে বৃষ্টির কারণে প্রথম দিনে আশানুরূপ ভিড় হয়নি। আগামী দিনগুলিতে ভিড় বাড়বে বলেই আশাবাদী তারা।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: October 2, 2020, 4:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर