• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যুতে ধন্দ, র‍্যাগিং না দুর্ঘটনা?

দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যুতে ধন্দ, র‍্যাগিং না দুর্ঘটনা?

দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে মৃত্যু হয় আউশগ্রাম পলিটেকনিক কলেজের এক ছাত্রের ৷

দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে মৃত্যু হয় আউশগ্রাম পলিটেকনিক কলেজের এক ছাত্রের ৷

দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে মৃত্যু হয় আউশগ্রাম পলিটেকনিক কলেজের এক ছাত্রের ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #বর্ধমান: দুর্গাপুরে পলিটেকনিক পড়ুয়ার মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে মৃত্যু হয় আউশগ্রাম পলিটেকনিক কলেজের এক ছাত্রের ৷

    কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, বাস থেকে পড়েই চোট পান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সন্দীপ মুখোপাধ্যায়। রবিবার একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। যদিও দুর্ঘটনার তত্ত্ব মানতে নারাজ সন্দীপের পরিবার। মাথায় ও শরীরে আঘাত দেখে ঘটনায় র‍্যাগিংয়ের অভিযোগ তুলেছেন পরিবারের সদস্যরা।

    বাঁকুড়ার কোতুলপুরের রামদিয়া গ্রামের বাসিন্দা সন্দীপ মুখোপাধ্যায়। পড়াশোনা  করতেন বর্ধমানের আউশগ্রামে একটি পলিটেকনিক কলেজে। বৃহস্পতিবার আউশগ্রামের জামতাড়ার কাছ থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় তাঁকে। প্রথমে গ্রামীণ স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং সেখান থেকে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভরতি করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। সেদিন রাতেই শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তর করে সন্দীপের পরিবার। রবিবার সেখানেই মৃত্যু হয় সন্দীপের। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, বৃহস্পতিবার হস্টেলে না জানিয়েই বেরিয়ে পড়েছিলেন সন্দীপ ৷ ঝুলন্ত অবস্থায় বাস থেকে পড়েই দুর্ঘটনাকিন্তু নিছক দুর্ঘটনার তত্ত্ব মানতে নারাজ তাঁর পরিবারের লোকজন।

    তাদের অভিযোগ, র‍্যাগিং করা হয়েছে সন্দীপকে ৷ কারণ- সন্দীপের মাথায় ও ঘাড়ে আঘাতের এমন কিছু চিহ্ন রয়েছে যা কখনই বাস থেকে পড়ে গিয়ে হতে পারে না বলে দাবি জানিয়েছে তাঁর পরিবার ৷  তাঁকে বাস থেকে ধাক্কা মারা হতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন তাঁরা ৷

    মাথায় গুরুতর আঘাত লেগেই সন্দীপের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান চিকিৎসকদের। তদন্ত শুরু করেছে দুর্গাপুরের নিউ টাউনশিপ থানা। সন্দীপের পরিবারের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে কোতুলপুর থানায়।

    First published: