• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • লকডাউনের উপর শিলাবৃষ্টি! জমির ধান জমিতেই নষ্ট হবে আশঙ্কায় কৃষকরা

লকডাউনের উপর শিলাবৃষ্টি! জমির ধান জমিতেই নষ্ট হবে আশঙ্কায় কৃষকরা

  • Share this:

 Saradindu Ghosh

#ভাতাড়: লকডাউন। অন্য কোনও কাজ নেই। তবু একবার করে মাঠে যাচ্ছিলেন কৃষকরা। মাঠে ধানের ফলন দেখে আশায় বুক বাঁধছিলেন অনেকেই। কিন্তু আধঘন্টার ঝড় ও শিলাবৃষ্টি ব্যপক ক্ষতি করে দিল বোরো চাষের। পূর্ব বর্ধমানের ভাতার, মঙ্গলকোট, মন্তেশ্বরের বেশ কিছু অংশে ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে বোরো ধানের ক্ষতি হয়ে যাওয়ায় মাথায় হাত কৃষকদের। তাঁরা বলছেন, এমনিতেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে গৃহবন্দি হয়ে থাকতে হচ্ছে। হাতে তেমন অর্থও নেই। ধানের ভাল ফলন কিছুটা সামাল দেবে ভাবা হয়েছিল। কিন্তু সেই আশায় জল ঢেলে দিল ঝড় ও শিলাবৃষ্টি। এবার বোরো ধানের ফলন ভালই হবে বলে আশা করছিল জেলা কৃষি দফতর। মাঠে ধানের গোছা ও শীষ দেখে ভাল ফলনের আশা করছিলেন কৃষকরাও। অনেক জমিতেই ধান পাকার মুখে। ধান কাটার জন্য মেশিন ও শ্রমিকের খোঁজ করা শুরু করে দিয়েছিলেন কৃষকরা। ঠিক সেই সময় এই প্রাকৃতিক দুর্যোগ চিন্তায় ফেলে দিল কৃষকদের। শুক্রবার রাতে শুরু হয় ঝড়। তারপরই শুরু হয় ব্যাপক শিলাবৃষ্টি। মূলত ভাতার ব্লকেই বেশি ক্ষতি হয়েছে। শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতির মুখে পড়েছেন ভাতার লাগোয়া মঙ্গলকোট, মন্তেশ্বরের কৃষকরাও। কৃষকরা বলছেন, শনিবার মাঠে গিয়ে দেখা যায় ঝড়ে অনেক ধান গাছ জমিতে শুয়ে পড়েছে। অনেক শীষ শিলা বৃষ্টিতে ঝরে পড়েছে। বেশ কিছু জমিতে ধানের থোড় থেকে শীষ বের হচ্ছিল। সেগুলি শিলা বৃষ্টিতে আঘাত পেয়েছে। সেগুলিতে আর ফলন মিলবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। শুধু ধান নয়, সবজি এবং আমেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অনেক গাছেই তুলনামূলক ভাল আমের মুকুল এসেছিল। ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে অনেক আমই ঝরে পড়েছে।জেলা কৃষি দফতর জানিয়েছে, ভাতার ব্লকেই মূলত শিলা বৃষ্টি হয়েছে। আধঘন্টা ধরে শিলাবৃষ্টি হয়। তাতে কিছু জমির ধানের ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। বিস্তারিত রিপোর্ট সংগ্রহ করা হচ্ছে। জেলার অন্যত্র ক্ষয়ক্ষতির কোনও খবর নেই। তবে এই সময় ঝড় শিলাবৃষ্টি হয়ে থাকে। ফের কালবৈশাখী ও শিলাবৃষ্টি হলে ক্ষতির পরিমাণ বাড়ার আশংকা থেকেই যাচ্ছে।

Published by:Simli Raha
First published: