Mamata Banerjee: 'ক্ষমতায় এলেই ডবল শিক্ষক নিয়োগ', কাশিপুরের জনসভা থেকে বিরাট ঘোষণা মমতার

Mamata Banerjee: 'ক্ষমতায় এলেই ডবল শিক্ষক নিয়োগ', কাশিপুরের জনসভা থেকে বিরাট ঘোষণা মমতার

শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। তবে এ বার ডবল শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি।

শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। তবে এ বার ডবল শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি।

  • Share this:

#কাশিপুরঃ শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। তবে এ বার ডবল শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি। মঙ্গলবার পুরুলিয়ার কাশিপুরের জনসভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "ক্ষমতায় এলে ডবল শিক্ষক নিয়োগ করব। প্যারা টিচার নিয়োগ করা হবে। অলচিকি ভাষার শিক্ষক নিয়োগ করব আমরা।" যদিও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মন্তব্য নিয়ে বিরোধীদের একাধিক প্রশ্ন রয়েছে। কটাক্ষ করে বিরোধীরা বলছে গত ১০ বছরে কতবার শিক্ষক নিয়োগ করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার? যদিও বিজেপির তরফেও প্রতিশ্রুতি রাখা হয়েছে ক্ষমতায় এলে প্রত্যেক বছরই শিক্ষক নিয়োগ করবেন তারা।

রাজ্যে এখনও পর্যন্ত উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শেষ হয়নি। আদালতের নির্দেশে মেধা তালিকা বাতিল হয় নতুন করে ফের শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া শেষ করছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। আদালতের নির্দেশ মতো ভেরিফিকেশন শেষ করে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া দ্রুত শুরু করবে এসএসসি। কমিশন সূত্রে খবর, এপ্রিল মাসের পরেই ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করতে পারে এসএসসি। যদিও প্রাথমিকের ১৬,৫০০ শিক্ষক নিয়োগের শূন্য পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রায় শেষ করে ফেলেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশের পরে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। যার জেরে শর্তসাপেক্ষে নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রায় শেষ করে কার্যত রাজ্য সরকারের মুখ রেখেছে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। যদিও বিরোধীদের তরফ এ অভিযোগ এখনও পর্যন্ত মেধা তালিকা গরমিল রয়েছে।

একাংশের বক্তব্য প্রত্যেকবারই ভোটের আগে শাসক থেকে বিরোধীরা শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেয়। বিরোধীদের অভিযোগ, গত পাঁচ বছরে এসএসসি উচ্চ প্রাথমিক থেকে দ্বাদশ স্তর পর্যন্ত পুরোপুরি শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারিনি। যদিও শাসকদলের পাল্টা যুক্তি একাধিক আইনি জটিলতার জেরেই তা করা সম্ভব হয়নি। উপরন্তু নবম-দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়াও একাধিক আইনি জটিলতার কারণে দীর্ঘদিন আটকে ছিল। শুধু তাই নয়, উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার নিয়ম বারবার আইনি জটিলতার মুখে পড়েছে এসএসসি।

তবে স্বস্তির বিষয় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ রাজ্যে একাধিক বার হওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে রয়েছে রাজ্যের শাসক দল। সম্প্রতি প্যারা টিচাররা একাধিক দাবি-দাওয়া নিয়ে বিক্ষোভ সংগঠিত করেছে মহানগরে। এমনকি বিধানসভা অভিযানে ধুন্ধুমার ঘটনা ঘটেছে এই প্যারা টিচারদের বিক্ষোভে। রাজ্যের বাজেটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্যারা টিচারদের জন্য একাধিক সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার কথা ইতিমধ্যে ঘোষণা করেছেন। কিন্তু ভোট প্রচারে তৃণমূল নেত্রীর লক্ষ্য যে শিক্ষক নিয়োগে তা মঙ্গলবার পুরুলিয়া জনসভা থেকে স্পষ্ট করে দিলেন। এ বার ডবল শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি তৃণমূল নেত্রীর।

 SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Shubhagata Dey
First published:

লেটেস্ট খবর