corona virus btn
corona virus btn
Loading

News18 বাংলার খবরের জের, হাওড়া হাসপাতলের অভুক্ত কুকুরদের মুখে উঠল খাবার

News18 বাংলার খবরের জের, হাওড়া হাসপাতলের অভুক্ত কুকুরদের মুখে উঠল খাবার

গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার হাওড়া হাপসাতালেই লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন খাওয়ার না পেয়ে মৃত্যু হয় এক কুকুর শাবকের, সেই মৃত দেহ ছিড়ে খাচ্ছিলো কাক, কাকদের হাত থেকে নিজের সন্তানের দেহ আগলে বসেছিল মা কুকুর, বার বার খাওয়ার দিলেও সন্তানের দেহ ছেড়ে যেতে নারাজ ছিল মা কুকুর |

  • Share this:

#হাওড়া: News18 বাংলার খবরের, খবর প্রকাশের পর হাওড়া হাসপাতালে অভুক্ত কুকুদের মুখে উঠলো খাওয়ার | দুই পশু প্রেমী যুবক যুবতী পৌঁছে গেল হাওড়া হাসপাতালে, হাতে বিস্কুটের প্যাকেট দেখে ছুটে ১০ টি কুকুর, আদর করে কুকুরদের মুখে তুলে দিলো খাদ্য, অসুস্থ কুকুরদের দেওয়া ওষুধ, সরানো হলো ক্ষত স্থান | নিউস১৮বাংলার খবর দেখে শিবপুরের বাসিন্দা দোনের সোমনাথ বিশ্বাস ,রিকপর্ণা দাস এসে পৌঁছায় হাওড়া হাসপাতালে |

গতকাল অর্থাৎ সোমবার হাওড়া হাপসাতালেই লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন খাওয়ার না পেয়ে মৃত্যু হয় এক কুকুর শাবকের, সেই মৃত দেহ ছিড়ে খাচ্ছিলো কাক, কাকদের হাত থেকে নিজের সন্তানের দেহ আগলে বসেছিল মা কুকুর, বার বার খাওয়ার দিলেও সন্তানের দেহ ছেড়ে যেতে নারাজ ছিল মা কুকুর | সেই দৃশ্য কাঁদিয়ে তুলেছিল হাসপাতালে দাঁড়িয়ে থাকা রোগীর আত্মীয়দের | লক ডাউনের জেরে বন্ধ দোকান হোটেল, হাওড়া হাসপাতালে করোনা রোগীর মৃত্যুর মানুষ জনের যাতায়াত যেমন কমেছে তেমন রোগী ভর্তিও কামচে অনেক গুন, সেই কারণেই পশু পাখিদের খাদ্যের যোগানও কমেছে অনেক গুন |

এই অবস্থায় না খেতে পেয়ে কুকুর শাবকের মৃত্যু অনেকটাই আশঙ্কা ছড়িয়েছে হাসপাতাল চত্বরে | পশু প্রেমী রিকপর্ণার দাবি তাদের সাদ্ধ মতো বিভিন্ন জায়গায় কুকুদের খাওয়ার দেওয়ার চেষ্টা করছি কিন্তু শহরের বিভিন্ন এলাকায় এই ধরণের কুকুরা খাওয়ার পাচ্ছেনা সেই ধরণের খবর কানে এলেই সেখানে পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করছি | অন্নদিকে সোমনাথ বিশ্বাসের দাবি হাওড়া হাসপাতালের কুকুরা অনেক দিন ধরেই খাদ্য কষ্টে ভুগছে, একদিন না এবার থেকে রোজ, যতদিন না এই লক ডাউন উঠছে ততদিন এদের মুখে খাওয়ার তুলে দেব, এবং News18 বাংলাকেও ধন্যবাদ জানিয়েছে তারা দুঃখের হলেও খবরটি মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য | কুকুর শাবকটির মৃত্যুর আগেই যদি জানতে পারতাম তাহলে হয়তো মা টিকে আজ সন্তান হারা হতে  হতো না |

Published by: Pooja Basu
First published: April 7, 2020, 8:26 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर