corona virus btn
corona virus btn
Loading

আইসোলেশনে বাড়ছে রোগী! এই শহরে হোম কোয়ারান্টিনে কত জন জানেন?

আইসোলেশনে বাড়ছে রোগী! এই শহরে হোম কোয়ারান্টিনে কত জন জানেন?

সোমবার পর্যন্ত এই জেলায় হোম কোয়ারান্টিনে ছিলেন ১১ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা। সেই সংখ্যাটাই এক লাফে বেড়ে হয়েছে ২০ হাজার ৮০০ ৫৩ জন।

  • Share this:

#বর্ধমান:পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে রোগীর সংখ্যা বাড়ল। বেড়েছে হোম কোয়ারান্টিনে থাকা পুরুষ মহিলার সংখ্যাও। গতকাল পর্যন্ত সরকারি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ছিলেন ৭ জন। সেই সংখ্যাটা বেড়ে হয়েছে ১৫ জন। এর মধ্যে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিশেষ আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন ৫ জন। কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন ৯ জন ও কালনা মহকুমা হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন ১ জন। তবে মঙ্গলবার সন্ধে পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলায় কারও শরীরে করোনা পজিটিভ এমন রিপোর্ট মেলেনি।

সোমবার পর্যন্ত এই জেলায় হোম কোয়ারান্টিনে ছিলেন  ১১ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা। সেই সংখ্যাটাই এক লাফে বেড়ে হয়েছে ২০ হাজার ৮০০ ৫৩ জন। বিদেশ থেকে এসে হোম কোয়ারান্টিনে গতকাল পর্যন্ত ছিলেন ১৫০ জন। সেই সংখ্যাটা বেড়ে হয়েছে ১৮৯ জন। প্রশাসন বলছেন, বর্ধমান শহরের প্রায় প্রতিটি এলাকাতেই বিদেশ বা বাইরের রাজ্য থেকে এসেছেন অনেকেই। তারা যাতে হোম কোয়ারান্টিন উপেক্ষা করে বাইরে বেরিয়ে পড়তে না পারেন সে ব্যাপারে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।  নিজের ও পরিবারের সকলের স্বার্থেই ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টিন জরুরি। বাইরে থেকে আসা অনেকেই এদিন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে যান। তাদের বেশির ভাগকেই হোম কোয়ারান্টিনে থাকার নির্দেশ দেন চিকিৎসকরা।

এখন এলাকার বাসিন্দা অনেক বেশি সচেতন। বাইরে থেকে আসা পুরুষ মহিলারা ঘরের বাইরে পা দিলেই সমবেতভাবে তার প্রতিবাদের পাশাপাশি অনেকেই পুলিশে বা জেলা প্রশাসনের হেল্ফ লাইনে ফোন করছেন। ফোন পেয়ে যথাসম্ভব সেই সব এলাকায় পৌঁছে যাচ্ছে পুলিশ। জেলা শাসক বিজয় ভারতী বলেন, লক ডাউন চলাকালীন যাতে অহেতুক কোথাও বাসিন্দারা ভিড় না করেন তা দেখা হচ্ছে। বাজার এলাকাগুলিতেও ভিড় এড়াতে সচেতন করার কাজ চলছে। ক্লাবের ঘরে যাতে এক সঙ্গে অনেকে বসে না থাকেন তা দেখা হচ্ছে। এজন্য এলাকায় এলাকায় পুলিশ টহল দিচ্ছে।

First published: March 24, 2020, 9:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर