হোম /খবর /দক্ষিণবঙ্গ /
মুর্শিদাবাদে ওমিক্রন আক্রান্ত শিশুর বাড়িতে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা

Omicron: সতর্ক জেলা প্রশাসন, মুর্শিদাবাদে ওমিক্রন আক্রান্ত শিশুর বাড়িতে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা

দেশে অ্যাকটিভ কেসও (Active Cases) ঊর্ধ্বমুখী। এই মুহূর্তে তা ৯১,৩৬১। আক্রান্তদের অনেকের শরীরেই ওমিক্রন বাসা বাঁধছে। এক্ষেত্রে সকলেই যে বিদেশফেরত, এমন নয়। যাঁদের সাম্প্রতিককালে বিদেশ যাওয়ার রেকর্ড নেই, তাঁদেরও অনেকে ওমিক্রন আক্রান্ত। প্রতীকী ছবি

দেশে অ্যাকটিভ কেসও (Active Cases) ঊর্ধ্বমুখী। এই মুহূর্তে তা ৯১,৩৬১। আক্রান্তদের অনেকের শরীরেই ওমিক্রন বাসা বাঁধছে। এক্ষেত্রে সকলেই যে বিদেশফেরত, এমন নয়। যাঁদের সাম্প্রতিককালে বিদেশ যাওয়ার রেকর্ড নেই, তাঁদেরও অনেকে ওমিক্রন আক্রান্ত। প্রতীকী ছবি

Covid 19: ওঁরা চারদিন হল বিদেশ থেকে ফিরেছিলেন। তবে ওঁরা এখনও পর্যন্ত ফরাক্কায় আসেননি।

  • Share this:

#ফরাক্কা: রাজ্যে প্রথম ওমিক্রনে (Omicron) আক্রান্ত এক শিশুর সন্ধান মিলেছে মুর্শিদাবাদের ফরাক্কায়। সেই শিশুর বয়স সাত বছর। কিন্তু আক্রান্তের সন্ধান মিলতেই উদ্বীগ্ন স্বাস্থ্য দফতর দ্রুত ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। বুধবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের মারফত জেলা স্বাস্থ্য দফতরে খবর এসে পৌছায় আবুধাবি থেকে হায়দ্রাবাদ হয়ে কলকাতা থেকে ফরাক্কায় আসা ওই শিশু ওমিক্রনে আক্রান্ত।

জেলা স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক মসিউর রহমান মেডিক্যাল টিম নিয়ে গিয়ে ফরাক্কার ঘোলাকান্দি এলাকায় ওই বাড়ি বাঁশ দিয়ে ঘিরে ফেলার নির্দেশ দেন। স্যানিটাইজ করা হয় গোটা এলাকা। তবে ওই পরিবারের আত্মীয়  বলেন, ওমিক্রন আক্রান্ত ওই শিশু তাঁর দেওরের ছেলে।

আরও পড়ুন :কলকাতার দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ স্বীকৃতি, ইউনেসকোর ঘোষণায় তিলোত্তমার ঐতিহ্য

ওঁরা চারদিন হল বিদেশ থেকে ফিরেছিলেন।  তবে ওঁরা এখনও পর্যন্ত ফরাক্কায় আসেননি। মালদায় এক আত্মীয়ের বাড়িতে রয়েছেন। ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক মসিউর রহমান বলেন, "জেলা স্বাস্থ্য দফতর থেকে নির্দেশ পাওয়া মাত্র সমস্ত প্রকার প্রস্তুতি নিয়ে ও মেডিক্যাল টিম নিয়ে এসে আক্রান্তের বাড়ি ঘিরে ফেলা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে বর্তমানে ওই শিশু কালিয়াচকে রয়েছে, ফরাক্কায় আসেনি।

আরও পড়ুন: বাংলায় প্রথম ওমিক্রনের খোঁজ, আক্রান্ত হায়দ্রাবাদ ফেরত ৭ বছরের শিশু!

জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সন্দীপ সান্ন্যাল বলেন, পরিবারের সঙ্গে আবুধাবি থেকে বিমানে করে হায়দ্রাবাদ হয়ে গত শনিবার কলকাতা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছয় শিশুটি। বর্তমানে আক্রান্ত ওই শিশু মালদার কালিয়াচকে রয়েছে। মূলত বিমানবন্দরে করোনা টেস্ট করা হলে সেখানেই ধরা পড়ে ওই শিশু করোনা পজিটিভ। শিশুটিকে আইসোলেশনে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তবে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে ওই শিশুর বাবা আবুধাবি এয়ারপোর্টে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের কাজ করেন। গত দুবছর ধরে তিনি আবুধাবিতেই ছিলেন। ফরাক্কাতে বাড়ি রয়েছে। জেলাশাসক শরদ দ্বিবেদী বলেন, পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে।

Pranab Kumar Banerjee

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Omicron