Home /News /south-bengal /
Digha Kandari Express: ট্রেন করে দিঘা সফর এখন আরও আরামের, কান্ডারি এক্সপ্রেসে বড় বদল

Digha Kandari Express: ট্রেন করে দিঘা সফর এখন আরও আরামের, কান্ডারি এক্সপ্রেসে বড় বদল

নতুন চেহারায় কান্ডারি এক্সপ্রেস৷

নতুন চেহারায় কান্ডারি এক্সপ্রেস৷

এর আগে এই দিঘা কান্ডারি এক্সপ্রেসে ১৭টি কোচ লাগানো ছিল। এবার সেখানে ১৮টি বগি লাগানো হয়েছে (Digha Kandari Express)।

  • Share this:

#দিঘা: যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্যের কথা মাথায় রেখে আধুনিক কোচ যুক্ত কান্ডারি এক্সপ্রেস ট্রেন দিঘা (Digha Kandari Express) থেকে যাত্রা শুরু করলো। অত্যাধুনিক এলএইচবি কোচ যুক্ত করা হয়েছে ওই ট্রেনটিতে।

দিঘা (Digha) কান্ডারি এক্সপ্রেস ট্রেনে আইসিএফ বগির পরিবর্তে জার্মান প্রযুক্তিতে তৈরি এলএইচবি কোচ লাগানো হয়েছে। যা সাধারণ ট্রেনযাত্রী এবং পর্যটক যাত্রীদের অনেকটাই স্বাচ্ছন্দ দেবে বলে মনে করা হচ্ছে। সবথেকে বড় কথা, এই বগি আইসিএফ কোচের তুলনায় অনেক নিরাপদ৷

আরও পড়ুন: কলকাতা মেট্রোয় চিনে তৈরি ডালিয়ান রেক ব্যবহারে রয়েছে একাধিক সমস্যা

এর আগে এই দিঘা কান্ডারি এক্সপ্রেসে ১৭টি কোচ লাগানো ছিল। এবার সেখানে ১৮টি বগি লাগানো হয়েছে। প্রত্যেকটি বগিতে ১০০টি করে সিট ছিল। এবার থেকে প্রত্যেক বগিতে ৮০টি করে করে আসন রয়েছে। যার ফলে পর্যটকরা অনেকটা ভালো ভাবে ট্রেনের ভিতরে চলাফেরা করতে পারবেন এবং সেই সঙ্গে মালপত্র রাখার ক্ষেত্রেও অনেকটা সুবিধা হবে।

যাত্রীরাও স্বীকার নিয়েছেন, নতুন এই বগিগুলি অনেকটাই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন। তবে আসনের উচ্চতা কম হওয়ায় পা ছড়িয়ে বসতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে বলে যাত্রীদের বক্তব্য।

আইসিএফ বগির ক্ষেত্রে দু'টি কামরার মাঝে স্ক্রু কাপলিং লাগানো থাকে। সেখানে এলএইচবি কোচে সিবিসি স্ক্রু লাগানো হয়েছে। যার ফলে ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটলে বগিগুলি একটির উপরে অন্যটি উঠে যাওয়ার আশঙ্কা নেই৷

আরও পড়ুন: নতুন নিয়মে দিঘা ভ্রমণের বড় আকর্ষণই মাটি!

এই মুহূর্তে পর্যটকদের জন্য বন্ধ রয়েছে দিঘা৷ ফলে তুলনামূলক ভাবে ট্রেনে ভিড় কম হচ্ছে৷ দিঘায় ফের পর্যটকদের আনাগোনা শুরু হলে যাত্রীরা এই ট্রেন সফর আরও উপভোগ করবেন বলেই মনে করছেন রেল কর্তারা৷

প্রসঙ্গত কয়েকদিন আগে ময়নাগুড়িতে দুর্ঘটনার কবলে পড়া বিকানের এক্সপ্রেসেও এই পুরনো আমলের আইসিএফ কোচ লাগানো ছিল৷ দুর্ঘটনা ভয়াবহ আকার ধারণ করার জন্য এই ধরনের কোচকেই দায়ী করা হয়েছিল৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

পরবর্তী খবর