• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • মাছের নানা পদ নিবেদন করা হয় ধাত্রীগ্রামের ৩০০ বছরের প্রাচীন জগদ্ধাত্রী পুজোয়

মাছের নানা পদ নিবেদন করা হয় ধাত্রীগ্রামের ৩০০ বছরের প্রাচীন জগদ্ধাত্রী পুজোয়

এবারও রীতি মেনে পুজো হল ধাত্রীগ্রামের জগদ্ধাত্রী মন্দিরে। অন্যান্যবার অগণিত দর্শনার্থী অন্নভোগ গ্রহণ করেন।

এবারও রীতি মেনে পুজো হল ধাত্রীগ্রামের জগদ্ধাত্রী মন্দিরে। অন্যান্যবার অগণিত দর্শনার্থী অন্নভোগ গ্রহণ করেন।

এবারও রীতি মেনে পুজো হল ধাত্রীগ্রামের জগদ্ধাত্রী মন্দিরে। অন্যান্যবার অগণিত দর্শনার্থী অন্নভোগ গ্রহণ করেন।

  • Share this:

#কালনা: প্রাচীন রীতি মেনে জগদ্ধাত্রী পুজো অনুষ্ঠিত হচ্ছে কালনার ধাত্রীগ্রামে। প্রায় তিনশো বছর ধরে ধাত্রীগ্রামে নিষ্ঠার সঙ্গে জগদ্ধাত্রী পুজো চলে আসছে। নবমীর দিন মাছের নানা পদের ভোগ মায়ের কাছে নিবেদন করা হয়। মালশা ভোগ বিতরণ করা হয় ভক্তদের মধ্যে। বাসমতি চালের খিচুড়িথেকে শুরু করে তের রকমের ভাজা, তরকারি, পায়েস সহ নানা পদ থাকে মালশা ভোগে।

এবারও রীতি মেনে পুজো হল ধাত্রীগ্রামের জগদ্ধাত্রী মন্দিরে। অন্যান্যবার অগণিত দর্শনার্থী অন্নভোগ গ্রহণ করেন। এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে ভিড় এড়াতে অন্নক্ষেত্র বাতিল করে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রসাদ বিতরণ করা হয়েছে।

এলাকায় অধিষ্ঠান মা জগদ্ধাত্রীর। অনেকে বলেন তা থেকেই এলাকার নাম ধাত্রীগ্রাম। অন্যান্যবার জগদ্ধাত্রী পুজোকে কেন্দ্র করে উৎসবমুখর হয়ে ওঠে তাঁত শিল্পের এলাকা ধাত্রীগ্রাম। বাড়িতে বাড়িতে আত্মীয়দের ভিড় বাড়ে। শুধু মহকুমা বা জেলার বাসিন্দারাই নন, পাশের জেলা মুর্শিদাবাদ ও নদিয়া থেকেও অগণিত ভক্ত এই মন্দিরেথ পুজো দেখতে আসেন। করোনা আবহে এবার কিছুটা অনাড়ম্বরভাবে এই পুজোর আয়োজন করা হয়েছে।

পুজোর উদ্যোক্তারা জানালেন, এবার পুজো হবে কিনা তা নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছিল। পরবর্তী সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুজোর আয়োজন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। সেইমতো মন্দিরের ঢোকার দুটি গেট বন্ধ রাখা হয়েছে। অল্প সংখ্যক ভক্তকে মন্দিরে পুজো দেওয়ার জন্য ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। একাধিক স্যানিটাইজার টানেল বসানো হয়েছে। সবাই যাতে মাস্কে মুখ ঢাকেন তা নিশ্চিত করা হচ্ছে। অন্যান্যবার এলাকায় মেলা বসে। এবার মন্দির সংলগ্ন এলাকায় দোকানপাট বসার অনুমতি দেওয়া হয়নি।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: