দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আবহে মহিষাদল রাজ পরিবারের দুর্গা পুজোর দিন কমলো !

করোনা আবহে মহিষাদল রাজ পরিবারের দুর্গা পুজোর দিন কমলো !

নিয়মে পরিবর্তন, কারণ মহালয়ার পর থেকেই মল মাস শুরু হয়েছে, এবার তাই প্রতিপদ তিথির পুজোও দেরিতে শুরু হবে।

  • Share this:

#মহিষাদল: মহালয়ার পরদিন, অর্থাৎ প্রতিপদ তিথির সাত সকালে মা দুর্গার পুজোর সূচনা হয়ে এসেছে এতদিন। মহিষাদল রাজবাড়ির দুর্গা দালানে প্রতিবার দশদিন ধরেই পুজোআর্চা হয়ে এসেছে। কিন্তু এবার সেই নিয়মে পরিবর্তন, কারণ মহালয়ার পর থেকেই মল মাস শুরু হয়েছে, এবার তাই প্রতিপদ তিথির পুজোও দেরিতে শুরু হবে। দশদিনের জায়গায় মহিষাদল রাজ পরিবারের প্রাচীণ দুর্গা মন্ডপে মায়ের পুজো হবে পাঁচদিন।করোনার কঠিন সময়ে পুজোকে ঘিরে আড়ম্বর কমছেই। সঙ্গে মল মাসের কারণে এই রাজবাড়ির দুর্গা পুজোর দিনও কমছে। রাজ পরিবারের প্রভাব প্রতিপত্তি কমে যাওয়ার কারণে প্রায় ২৫০ বছরের প্রাচীণ এই পুজোর আড়ম্বর অনেক বছর আগেই কমেছে।

যে রাজ পরিবারের দুর্গা পুজোয় ষষ্ঠীতে ছয় মন, সপ্তমীতে সাত মন কিংবা অষ্টমী- নবমীতে আট ও নয় মন চালের ভোগ মায়ের চরণে নিবেদন করা হত, সেই রাজবাড়িরই দুর্গা আরাধনায় কয়েক দশক ধরে ষষ্ঠী, সপ্তমী, অষ্টমী, নবমীতে ৬,৭,৮ এবং ৯ কিলো চালের নিবেদন করা হয়। প্রভাব প্রতিপত্তি এবং আয় উপায় কমে যাওয়ার কারণে পুজোর বাজেটে বছর বছর কাঁটছাঁট চলছেই। তার ওপর এবার করোনার কঠিন সময় সামনে আসায় নিজেদের প্রাচীণ পুজোর আয়োজনে আড়ম্বরতা পুরোপুরি কমিয়ে দিয়েছেন রাজবাড়ির বর্তমান বংশধররা।

অথচ এই রাজবাড়িরই দুর্গাপূজার আয়োজন ঘিরে এক সময় উৎসাহ, উদ্দীপনা এবং তৎপরতা চোখে পড়ার মতোই ছিলো। পুজোকে ঘিরে ছিলো সামাজিক এবং পৌরাণিক  নানা কাহিনি। চাষাবাদ থেকে খাজনা, জমি থেকে বন ও বনাঞ্চলে বসবাসকারী পশু-প্রাণীদের কাহিনি। এই রাজবাড়ির দুর্গাপূজার সঙ্গে বহু জানা অজানা কাহিনি ও গল্পকথা জড়িয়ে আছে। যা মহিষাদল অঞ্চলের মানুষের মুখে মুখে আজও চর্চিত হয়। পুজোর দিন এগিয়ে এলে সেই চর্চাই আরও বাড়ে। এবার করোনা সেই চর্চার ওপর যেন পর্দা ফেলতে চাইছে। তবু, কঠিন এই সময়কালে রাজবাড়ির দুর্গা আয়োজনের দিকে নজর রাখছেন সব্বাই।

SUJIT BHOWMIK

Published by: Piya Banerjee
First published: October 10, 2020, 7:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर