• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • কোটি কোটি টাকার ধান কেলেঙ্কারি, গ্রেফতার মূল পাণ্ডা

কোটি কোটি টাকার ধান কেলেঙ্কারি, গ্রেফতার মূল পাণ্ডা

এবার সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার পরেও কৃষকরা টাকা না পাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সমবায়ের এক পার্চেসিং অফিসার।

এবার সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার পরেও কৃষকরা টাকা না পাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সমবায়ের এক পার্চেসিং অফিসার।

এবার সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার পরেও কৃষকরা টাকা না পাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সমবায়ের এক পার্চেসিং অফিসার।

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #বীরভূম: এবার সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার পরেও কৃষকরা টাকা না পাওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সমবায়ের এক পার্চেসিং অফিসার। লালগড় থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রশান্ত খান নামে ওই অফিসারকে। সহায়ক মূল্যে ধান বিক্রির পরেও টাকা না পাওয়ার একই অভিযোগ বীরভূমের বেশ কিছু কৃষকের। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার শিবির হয় লালগড়, ধরমপুরে। ১৩০০ কুইন্টাল ধান কেনা হয়েছিল ধাপে ধাপে।  ঝাড়গ্রামের দুটি সমবায়ের পার্চেসিং অফিসার কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার পর রসিদ দিলেও, এখনও টাকা পাননি  বলে জানিয়েছিলেন কৃষকরা। খাদ্যমন্ত্রী সেই খবর পেয়ে, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেও নির্দেশ দেন। অবশেষে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেফতার হন প্রশান্ত খান। শুক্রবার অভিযুক্ত পার্চেসিং অফিসারকে আদালতে তোলা হলে, ১০ দিনের পুলিশ হেফাজত হয় তাঁর।

    একই অভিযোগ বীরভূম বর্ধমান সীমানার ভেদিয়া কুঠিপাড়াতেও। সরকারি মূল্যে ধান বিক্রি করার পরে কেটে গেছে আট মাস। এখনও টাকার মুখ দেখলেন না বীরভূম ও বর্ধমানের ভেদিয়া কুঠিপাড়ার প্রায় কুড়ি জন কৃষক।  চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ১৪১০ টাকা মূল্যে ধান বিক্রি করেন ভেদিয়ার কৃষকরা। চড়া সুদে ঋণ নিয়ে চাষ করার পরেও টাকা না মেলায় মাথায় হাত কৃষকদের। গোটা ঘটনাই মুখ্যমন্ত্রীকে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

    টাকা না আসার কোনও কারণ বলতে পারছে না বটগ্রাম কল্যাণপুর কৃষি উন্নয়ন সমিতিও।

    প্রশান্ত খানের গ্রেফতারিতে লালগড়ের কৃষকরা কিছুটা হলেও আশার আলো দেখছেন। ভেদিয়ার কৃষকরাও সরকারি হস্তক্ষেপের দিকেই তাকিয়ে।

    First published: