• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • CPIM LEADER MD SALIM BLAME TMC GOVERNMENT FOR CONTROVERSIAL RECRUITMENT PROCEDURE SDG

'এসএসসি-১০০ দিনের কাজ, রাজ্যের কোনও নিয়োগই স্বচ্ছ নয়', কালনায় তৃণমূলকে কটাক্ষ সেলিমের

কালনার সভায় মহম্মদ সেলিম।

তৃণমূল কংগ্রেসে যারা অপরাধে হাত পাকিয়েছে তারাই এখন বড় অপরাধ করার জন্য বিজেপির ছত্রছায়ায় যাচ্ছে। এমনই অভিযোগ করলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম।

  • Share this:

#কালনা: তৃণমূল কংগ্রেসে যারা অপরাধে হাত পাকিয়েছে তারাই এখন বড় অপরাধ করার জন্য বিজেপির ছত্রছায়ায় যাচ্ছে। এমনই অভিযোগ করলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। শুক্রবার পূর্ব বর্ধমানের মন্দির শহর কালনায় বামফ্রন্টের নির্বাচনী জনসভায় মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি। বক্তব্য রাখার আগে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, তৃণমূলের আমলে একটা নিয়োগ পরীক্ষা সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হয়নি।

কালনায় মহম্মদ সেলিম বলেন, এ রাজ্যে এখন টাকাপয়সার বিনিময়ে চাকরি নিলাম হয়। শুধু টেট নয়, সব ক্ষেত্রেই এখন এই দুর্নীতি চলছে। আগে পাবলিক সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ নিয়ে কেউ কোনও কথা বলতে পারতো না। শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা স্কুল সার্ভিস কমিশন এসএসসি নিয়ে কোনও প্রশ্ন উঠত না। আর এখন এই সব নিয়োগ নিয়েই প্রশ্ন উঠছে। এখন তো একশো দিনের কাজ নিয়েও দুর্নীতি হচ্ছে। ঘর তৈরি টাকা নিয়ে দুর্নীতি হচ্ছে। তেমনই চুক্তির ভিত্তিতে সরকারি বাসের ড্রাইভার, কন্ডাক্টর নিয়োগেও টাকা খাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। অনেকেই তৃণমূলের নেতা হয়ে দুধের সরটা খেয়েছে, এখন তারা পুরো হাঁড়িটা চেটেপুটে খাওয়ার জন্য বিজেপিতে যাচ্ছে। আমরা ক্ষমতায় এলে যারা উপযুক্ত তাদের যেমন নিয়োগ করব ঠিক তেমনই নিয়োগ দুর্নীতিতে যুক্তদের চিহ্নিত করে জেলের ঘানি টানাব।

এ দিন কালনার নতুন বাস স্ট্যান্ড এলাকায় জনসভা করেন প্রবীণ সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। সেই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৃণমূল ছেড়ে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া বিধায়ক বিশ্বজিত কুণ্ডুর কড়া সমালোচনা করেন তিনি। শাসক দলের বিধায়ক থাকার সুযোগ নিয়ে পরিবারের সদস্যদের প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরি দেওয়ার বিষয় তুলে ধরে বিশ্বজিৎ কুণ্ডুকে একহাত নেন তিনি। উল্লেখ্য, কালনার বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই পরিবারের সদস্যদের চাকরি দেওয়ার বিষয়টি সামনে এনে তার কড়া সমালোচনা করে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। এবার সেই ইস্যুতে বিধায়ককে নিশানা করলেন প্রবীণ সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিমও।

পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ও রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, এখন কেন্দ্রে মোদির লুট চলছে, আর এই বাংলায় দিদির লুট চলছে। করোনা সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লক্ষ্মণরেখার কথা মনে করিয়ে দিয়েছিলেন। মোদি ওখান থেকে ঘোষণা করেছিলেন,আর দিদি রাস্তায় নেমে লক্ষ্মণ রেখা নিজে কেটে দিয়েছিলেন। কেন্দ্রে মোদি তত্ত্বগতভাবে ঘোষণা করছেন আর দিদি এ রাজ্যে তা হাতে-কলমে বাস্তবায়িত করছেন। এখন কেন্দ্র আর রাজ্যের সম্পর্কটা অনেকটা ডাক্তার আর কম্পাউন্ডারের মতো। ওদিকে মোদি ডাক্তারের মতো প্রেসক্রিপশন করে দিচ্ছেন। আর এ রাজ্যে দিদি কম্পাউন্ডারের মতো মানুষকে তা বুঝিয়ে দিচ্ছেন।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published: