corona virus btn
corona virus btn
Loading

পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছাড়াল, ভয়ে কাঁটা জেলার বাসিন্দারা

পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছাড়াল, ভয়ে কাঁটা জেলার বাসিন্দারা

আক্রান্তদের বেশির ভাগই সম্প্রতি মহারাষ্ট্র ও দিল্লি থেকে জেলায় ফিরেছেন।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়ে গেল! জেলায় এদিন নতুন করে বেশ কয়েক জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। মেমারিতে এদিন নতুন করে ৩ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। জামালপুরে একজনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট মিলেছে। কেতুগ্রামে আক্রান্ত হয়েছেন তিন জন। কাটোয়াতেও দুজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের বেশির ভাগই সম্প্রতি মহারাষ্ট্র ও দিল্লি থেকে জেলায় ফিরেছেন। লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন জেলার বাসিন্দারা। বাইরের রাজ্য থেকে ইতিমধ্যেই কুড়ি হাজারেরও বেশি বাসিন্দা জেলায় ফিরেছেন। তাই আক্রান্তের সংখ্যা আরও অনেকটাই বাড়বে বলে আশঙ্কা করছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর। জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, বাইরে থেকে আসা বাসিন্দাদের করোনা পরীক্ষার জন্য দ্রুততার সঙ্গে নমুনা সংগ্রহের কাজ চলছে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, জেলায় সোমবার পর্যন্ত ৭৩টি এলাকাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে। তবে ধীরে ধীরে কন্টেইনমেন্ট জোনের সীমানা ছোট করা হচ্ছে। আক্রান্তদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। তাদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হবে। সেখানে তাঁদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। আক্রান্তদের বাড়ি ও আশপাশের এলাকা স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। ওই এলাকার বাসিন্দারা আগামী ২১ দিন এলাকার বাইরে যেতে পারবেন না। বাইরের এলাকার বাসিন্দারাও যাতে ওই এলাকায় ঢুকতে না পারে তা নিশ্চিত করতে পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে। কন্টেইনমেন্ট জোন এলাকা বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলা হচ্ছে।

এদিনও প্রচুর যাত্রী বর্ধমান রেল স্টেশন বিশেষ ট্রেন থেকে নেমেছেন। তাদের বাসে চাপিয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, ব্যাপকভাবে করোনা আক্রান্ত পাঁচ রাজ্য থেকে যাঁরা আসছেন তাদের প্রত্যেককেই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা নিশ্চিত করা হচ্ছে। পাঁচ দিন পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। যেসব নমুনা ইতিমধ্যেই সংগ্রহ করা হয়েছে তা দ্রুততার সঙ্গে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 2, 2020, 8:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर