করোনা-য়ে ক্ষতিগ্রস্ত কাঁকড়া ব্যবসা, চিন-সহ বিভিন্ন দেশে বন্ধ রফতানি

করোনায় বিদ্ধ এবার সুন্দরবনের কাঁকড়া

বাংলার কাঁকড়ার সবচেয়ে বড় বাজার বেজিং, সাংহাইয়ে আমতানি বন্ধ।

  • Share this:

    #সুন্দরবন: করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে বিপুল ক্ষতির মুখে সুন্দরবনের কাঁকড়া ব্যবসায়ীরা। মারণ ভাইরাসের দাপটে বন্ধ কাঁকড়া রফতানি। বাংলার কাঁকড়ার সবচেয়ে বড় বাজার বেজিং, সাংহাইয়ে আমতানি বন্ধ। দরজা বন্ধ করেছে থাইল্যান্ড, ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর, মালোয়েশিয়া-সহ বিভিন্ন দেশ। এক ধাক্কায় কাঁকড়ার দামও পড়েছে অনেকটাই। করোনায় বিদ্ধ এবার সুন্দরবনের কাঁকড়া । ২৬ জানুয়ারি থেকে বন্ধ কাঁকড়া রফতানি। করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে চিন-সহ বিভিন্ন দেশ আপাতত বন্ধ রেখেছে কাঁকড়া আমদানি। চরম ক্ষতির মুখে সুন্দরবনের কাঁকড়া ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত মানুষজন। এক ধাক্কায় দামও পড়েছে অনেকটা। বাঘ-কুমীরের সঙ্গে নিত্য লড়াই করে কাঁকড়া ধরে পেট চলে ক্যানিং, বাসন্তি, গোসাবা, ঝড়খালি-সহ বিভিন্ন এলাকার মৎস্যজীবীদের। তাঁদের কাছ থেকে কাঁকড়া সংগ্রহ করে রফতানিকারক সংস্থার কাছে বিক্রি করেন আড়তদাররা। এভাবেই সুন্দরবনের কাঁকড়া পাড়ি দেয় চিন, থাইল্যান্ড, ব্যাংকক, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর- সহ বিভিন্ন দেশে। করোনার ধাক্কায় কার্যত বন্ধ ব্যবসা। আড়তদাররা বলছেন, আগে এক কেজি কাঁকড়া বিক্রি হত পনেরশো টাকায়। বর্তমানে সেই কাঁকড়া তিনশো টাকা কেজিতেও কিনতে চাইছে না রফতানিকারক সংস্থাগুলি মারণ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে চিনে। হু-হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে, উত্তর জানা নেই কারও। কাঁকড়া ধরে পেট চালানো সুন্দরবনের মৎস্যজীবীদের পরিবারে এখন শুধুই হতাশা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: