করোনায় আক্রান্ত চিন, সেনঝেনে আটকে বাঙালি পরিবার

করোনায় আক্রান্ত চিন, সেনঝেনে আটকে বাঙালি পরিবার

শুনশান। সব বন্ধ। বাজার আছে। লোক নেই। ছবিটা সেনঝেনের।

  • Share this:

#বর্ধামান: করোনা আতঙ্কে চিনের সেনঝেনে গৃহবন্দি বাঙালি ব্য়বসায়ী পরিবার ৷ আবাসন থেকে বাইরে বেরোনো ও ঢোকার সময় মাপা হচ্ছে দেহের তাপমাত্রা ৷ ইউহান থেকে কেউ গেলে জানাতে হচ্ছে স্থানীয় থানায় ৷ আতঙ্কিত ব্য়বসায়ী শেখ আল হিলাল ও তাঁর পরিবার ৷ শুনশান। সব বন্ধ। বাজার আছে। লোক নেই। ছবিটা সেনঝেনের। চিনের দক্ষিণ-পূর্বের এই শহর হংকংয়ের খুব কাছে। ইউহান থেকে প্রায় ১২০০ কিলোমিটার দূরে এই শহর বিখ্যাত শপিং মলের জন্য। এবার সেখানেও করোনা আতঙ্কে গৃহবন্দি বাঙালি ব্য়বসায়ী পরিবার ৷ স্ত্রী নার্গিস ও ১৩ বছরের ছেলে আহানকে নিয়ে থাকেন শেখ আলহিলাল। দীর্ঘদিন আছেন পেশায় বস্ত্র ব্যবসায়ী। আলহিলাল জানান, করোনা ভাইরাস নেই। আছে আতঙ্ক।

বর্ধমানের নবীনগরে শেখ আলহিলালের বাড়ি। বাড়িতে আছেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক বাবা আর মা। সকলেই চান বাড়ি ফিরুক ছেলে। ভিডিও কলিংয়ের মাধ্যমে আল হিলালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কার্যত গৃহবন্দি হয়ে দিন কাটছে তাঁদের। বেশিরভাগ বাজার বন্ধ। রাস্তায় লোকজন নেই। নিরুপায় হয়ে যাঁরা বেরোতে হচ্ছে, তাঁরা মুখে মাস্ক । মেট্রো চলাচলও অনিয়মিত ৷ মাস্ক না পরলে মেট্রোয় ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না কাউকে ৷ নিরুপায় হয়ে ফ্ল্য়াটের বাইরে গেলে শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করিয়ে বেরোতে হচ্ছে ৷ একই পদ্ধতি ফ্ল্য়াটে ঢুকতে গেলেও ৷ ইউহান থেকে কেউ গেলে জানাতে হচ্ছে স্থানীয় থানায় ৷ চিনা নাগরিকদের দাবি, বিদেশিদের থেকেই এই ভাইরাস ছড়াচ্ছে ৷ ইউহানে বিমান পাঠাতে দিল্লির অনুরোধ রেখেছে বেজিং। আলহিলালদের আশা, তাঁরাও মুক্তি পাবেন এই আতঙ্ক থেকে।

SARADINDU GHOSH

First published: January 29, 2020, 4:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर